আফগানিস্তানে পাকিস্তান কনস্যুলেটে ভিসার লাইনে পদপিষ্ট হয়ে মারা গেছে ১৫ জন

দুরন্ত ডেস্ক:

আফগানিস্তানের একটি শহরে পাকিস্তানের কনস্যুলেটে ভিসার আবেদন করতে জড়ো হওয়া কয়েক হাজার মানুষের ধাক্কাধাক্কিতে ভিড়ের চাপে কমপক্ষে ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। দুর্ঘটনার একদিন পর বুধবার দুই প্রাদেশিক কর্মকর্তা রয়টার্সকে জানান, কনস্যুলেটের বাইরে খোলা মাঠে আনুমানিক তিন হাজার মানুষ জড়ো হন। ভিসার জন্য আবেদন করতে তারা টোকেন সংগ্রহের জন্য অপেক্ষা করছিলেন।

ভিড়ের মধ্যে থেকে বেঁচে ফেরেন ফারমানুল্লাহ নামের এক আফগান নাগরিক। তিনি রয়টার্সকে বলেন, ‘আমি সারারাত লাইনে দাঁড়িয়ে ছিলাম। কিন্তু একপর্যায়ে মানুষজন রেগে যায় এবং ঠেলাঠেলি শুরু করে। তখন আমরা অনেকেই মাটিতে পড়ে যাই।’

জালালাবাদের একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘কনস্যুলেট কর্মকর্তাদের কাছ থেকে টোকেন নেওয়ার জন্য ভিসাপ্রার্থীরা ধাক্কাধাক্কি শুরু করে, তারা নিয়ন্ত্রণহীন হয়ে পড়ার পর এ ঘটনা ঘটে।’

পূর্ব জালালাবাদ শহরে প্রাদেশিক কাউন্সিল সদস্য সোহরাব কাদেরী জানান, নিহতদের মধ্যে ১১ জন নারী। এ ছাড়াও, বেশ কয়েকজন প্রবীণ নাগরিক আহত হয়েছেন। আফগানিস্তানে নিযুক্ত পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত মনসুর আহমদ খান হতাহতের ঘটনায় গভীরভাবে দুঃখ প্রকাশ করেন।

উল্লেখ্য, প্রতিবছর চিকিৎসা, শিক্ষা ও কাজ খুঁজতে হাজার হাজার আফগান নাগরিক প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানে যান।

পাকিস্তানে প্রায় ৩০ লাখ আফগান শরণার্থী ও অভিবাসী অবস্থান করছেন। নিজেদের যুধ্ববিধ্বস্ত দেশে বিরাজমান সহিংসতা, দারিদ্র ও ধর্মীয় নিপীড়ন থেকে বাঁচতে তারা প্রতিবেশী দেশটিতে আশ্রয় নেন।