ইউএনও ওয়াহিদার ওপর হামলার বিচার চায় ছাত্র ফেডারেশন

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) বাংলা বিভাগের প্রাক্তন শিক্ষার্থী ও দিনাজপুর জেলা ঘোড়াঘাট উপজেলার নির্বাহী অফিসার ওয়াহিদা খানমের উপর দুর্বৃত্তদের হামলার বিচারের দাবি জানিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র ফেডারেশন।

শুক্রবার (৪ই সেপ্টেম্বর)সকালে অর্থসম্পাদক রিয়াজ হোসেন সাক্ষরিত এক প্রেস বিবৃতিতে এই দাবি জানিয়েছে তারা।

বিবৃতিতে ছাত্র ফেডারেশন রাবি শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আশরাফুল আলম সম্রাট বলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থী ও নির্বাহী অফিসার ওয়াহিদা খানমের ওপর অতর্কিত হামলা কোনো বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। এটা রাষ্ট্রের চলমান বিচারহীনতারই ফল। এই বিচারহীনতার সংস্কৃতি থেকে বেড়িয়ে আসতে না পারলে এমন হত্যাকান্ড নিত্যনৈমত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়াবে। আমরা এই ঘটনার সাথে জড়িতদের দ্রুত বিচারের দাবি জানাই।

সাধারণ সম্পাদক মহব্বত হোসেন মিলন বলেন, ইউএনও ওয়াহিদা খানমের ওপর ন্যাক্কার জনক এই হামলার ঘটনা সরকার এবং আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর ভূমিকাকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে।

দেশে আজ ঘুমন্ত মানুষের নিরাপত্তা নেই। সরকার বারবার জনগনের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে। এই হামলার দায় সরকারকেই নিতে হবে। হামলার সাথে জড়িত সকলকে দ্রুত চিহ্নিত করে বিচারের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। আমরা সকলের জন্য নিরাপদ বাংলাদেশ চাই।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার(৩ই সেপ্টেম্বর) রাত ২ টায় দিনাজপুর জেলার ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার ওয়াহিদা খানমের সরকারি বাসভবনে হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। মাথায় গুরুতর আঘাতের ফলে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রাতেই তাকে রংপুরে নেওয়া হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার নিউরো সার্জারী ইনিস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়। রাতে তার মস্তিষ্কের সার্জারী করা হলেও এখন শঙ্কামুক্ত নন তিনি।

তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের (২০০৩-৪ শিক্ষাবর্ষ) প্রাক্তন শিক্ষার্থী ছিলেন। তার বাবা ওমর আলী শেখ একজন মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। এ ঘটনায় তিনিও গুরুতর অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি আছেন।