ইবি উপাচার্যকে অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি-
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) বর্তমান উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারীকে অপসারণ ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকটি সংগঠন। একইসাথে দ্রুত সময়ের মধ্যে তাঁকে অপসারণ করা না হলে বিশ্ববিদ্যালয়ে কঠোর আন্দোলনের হুঁশিয়ারিও দেয় তারা।

শনিবার বেলা ১১টায় কুষ্টিয়া শহরের এন এন রোডে অনুষ্ঠিত এ মানববন্ধনে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা বঙ্গবন্ধু পরিষদ, কর্মকর্তা সমিতি ও বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা অংশ নেন।

এসময় তাদের হাতে ‘দুর্নীতিবাজ উপাচার্য আসরকারীর দৃষ্টান্তমূলক বিচার চাই, সাহেদ-সাবরিনা গেছে যে পথে, আসকারী যাবে সেই পথে, দুর্নীতিবাজদের বসবাস উপাচার্য আসকারীর চারপাশ, আশকারী গংদের বিচার চাইসহ উপাচার্যকে নিয়ে বিভিন্ন ধরনের স্লোগান লেখা ফেস্টুন দেখা যায়।

বঙ্গবন্ধু পরিষদের সহসভাপতি অধ্যাপক আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন কর্মকর্তা সমিতির সাধারণ সম্পাদক মীর মো. মোর্শেদুর রহমান, বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মাহবুবুল আরফিন, অধ্যাপক আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া, সাজ্জাদ হোসেন, কর্মকর্তা সমিতির সভাপতি শামছুল ইসলাম, সদস্য উকিল উদ্দিন, ছাত্রলীগ নেতা জুবায়ের রহমান প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা উপাচার্যকে দুর্নীতিবাজ আখ্যা দিয়ে বলেন, ‘নিয়োগ–বাণিজ্য ও টেন্ডার–বাণিজ্যের হোতা দুর্নীতিবাজ উপাচার্য আসকারী দায়িত্ব গ্রহণ করেই প্রগতিশীল এবং ছাত্রলীগের রাজনীতি ধ্বংস করে জামায়াত-বিএনপির এজেন্ডা বাস্তবায়ন করে চলেছেন। তিনি একটি সিন্ডিকেট তৈরি করে সেই সিন্ডিকেটের মাধ্যমে সব ধরনের অনিয়ম-দুর্নীতি পরিচালনা করছেন। কেউ প্রতিবাদ করলে তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয় এবং হুমকি দেয়। বিশ্ববিদ্যালয় আজ তলাবিহীন ঝুড়িতে পরিণত হতে চলেছে।’

বক্তারা বলেন, ‘আগামী ২০ আগস্ট বর্তমান উপাচার্যের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। তবে এই দুর্নীতিবাজ উপাচার্য দ্বিতীয় মেয়াদে নিয়োগ পেতে দেনদরবার করছেন। তিনি যদি পুনরায় নিয়োগ পান, তাহলে ক্যাম্পাসে মারাত্মক অস্থিশীল পরিবেশ তৈরি হবে।’

বিশ্ববিদ্যালয়কে বাঁচাতে অবিলম্বে এই দুর্নীতিবাজ উপাচার্যকে অপসারণ করে এবং তাঁর অনিয়ম-দুর্নীতি সিন্ডিকেটের সব সদস্যের অপকর্ম তদন্তপূর্বক বিচারের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবি জানান বক্তারা।