ইসরায়েলি বাহিনীর নির্মম অত্যাচারে ফিলিস্তিনি তরুণ নিহত

দুরন্ত ডেস্ক:

ইসরায়েলি সেনা সদস্যদের মারধরের পর এক ফিলিস্তিনি তরুণ নিহত হয়েছেন। রামাল্লার উত্তর-পূর্বে তুরমাস-আইয়া শহরের কাছে তাকে মারধর করা হয়। ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলছে, আমের আবেদারলাহিম স্নোবার নামের ওই তরুণ মারাত্মকভাবে আহত হওয়ার পর হাসপাতালে যান।

ফিলিস্তিনের বেশ কয়েকটি নিউজলেটের বরাত দিয়ে এই তথ্য জানিয়েছে আল-জাজিরা। ফিলিস্তিন মেডিক্যাল কমপ্লেক্সের পরিচালক আহমেদ আল-বিতাউই রবিবার সকালে ফিলিস্তিনের সংবাদমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন, ইসরায়েলি বাহিনীর আক্রমণে আহত হওয়ার ফলে স্নোবার মারা যান।

আহমেদ আল-বিতাউই বলেন, স্নোবারের ঘাড়ে মারধরের চিহ্ন দেখা গেছে। তার শরীরে মারধরের চিহ্নগুলো রাইফেলের বাট দিয়ে আঘাত করার পর যে চিহ্ন হয় সেগুলোর মতো বলে জানিয়েছে চিকিৎসা কেন্দ্র।

তবে ফিলিস্তিনি এ কিশোরকে প্রহারের অভিযোগ অস্বীকার করেছে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী। এক বিবৃতিতে তারা দাবি করেছে, সেনাদের গাড়িতে পাথর নিক্ষেপের পর রামাল্লাহর উত্তরে একটি কাজে গিয়েছিল ইসরায়েলি বাহিনী।

তাদের দাবি, ঘটনাস্থলে সেনা পাঠানো হয়েছিল এবং তারা আক্রমণকারীদের খুঁজছিল। প্রাথমিক বিবরণীতে দেখা যাচ্ছে, সেনারা পৌঁছানোর পর দুই সন্দেহভাজন দৌঁড়ে পালানোর চেষ্টা করে। ইসরায়েলিদের ভাষ্যমতে, পালানোর সময় একজন অজ্ঞান হয়ে পড়ে যায় এবং মাথায় আঘাত পায়। তাকে মারধর করা হয়নি।

সূত্র: আলজাজিরা।