উত্তাল পদ্মার কারণে শিমুলিয়ায় লঞ্চ-স্পিডবোট বন্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক:

পদ্মা উত্তালের কারণে শিমুলিয়া-কাঠালবাড়ি নৌরুটে বন্ধ হয়ে গেছে লঞ্চ ও স্পিডবোট চলাচল। বুধবার (৫ আগস্ট) বিকেল পৌনে ৫টায় উত্তাল পদ্মায় চলতে না পারায় বন্ধ হয়ে যায় ও স্পিডবোট চলাচল।

এতে দক্ষিাণাঞ্চলের ২১ জেলার ঈদ শেষে কর্মস্থলে ফেরা মানুষ পড়লো আরেক চ্যালেঞ্জে।

এসব তথ্য দিয়ে বিআইডব্লিউটিএ’র সহকারী পরিচালক শাহাদাৎ হোসেন জানান, পদ্মায় এখন ৪নং বিপদ সংকেত চলছে। আমরা এর আগে ২নং বিপদ সংকেত থাকা অবস্থায়ও লঞ্চ ও স্পিডবোট চালিয়েছি।

কিন্তু বুধবার পদ্মা মারাত্মক উত্তাল। পদ্মায় এখন প্রচণ্ড ঘূণিস্রোত আর বড় বড় ঢেউ। এর মধ্যে লঞ্চ ও স্পিডবোট চললে যে কোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। তাই লঞ্চ ও স্পিডবোট চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে।

এদিকে এই রুটে ৩ সপ্তাহ ধরে ফেরি চলাচল করছে সীমিত আকারে। এতে দুর্ভোগ পোহাচ্ছিল এ রুটে চলাচলকারী লাখ লাখ মানুষ। এখন লঞ্চ ও স্পিডবোট চলাচল বন্ধ হওয়ায় দুর্ভোগ আরও বাড়বে। এই রুটে ৮৭টি লঞ্চ ও সাড়ে ৪শ’ স্পিডবোট চলাচল করে থাকে।

এদিকে, বুধবার ১০টার দিকে শিমুলিয়া থেকে ছেড়ে যাওয়া ভেঙে যাওয়া ৩নং ফেরি ঘাটের কাছে প্রচণ্ড ঢেউয়ে ১৬ জন যাত্রী নিয়ে স্পিডবোটর তলা ফেটে যায়। যাত্রীরা সবাই লাইফ জ্যাকেট পড়া ছিল। পরে নৌপুলিশ তাদের সকলকে উদ্ধার করে। এর মধ্যে এক নারী যাত্রী শুধু আহত হয়েছেন। তাকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

বিআইডব্লিউটিসির সহকারী ম্যানেজার প্রফুল্ল চৌহান জানান, ফেরি চলছে ঠিকই। কিন্তু কতক্ষণ চালাতে পারবো বলতে পারছি না। স্রোতের কারণে ফেরিগুলো নোঙর করতে সমস্যা হচ্ছে। ঠিকভাবে চলতে পারছে না ফেরিগুলো। যে কোনো সময় ফেরি চলাচলও বন্ধ হয়ে যেতে পারে। পদ্মার প্রবল স্রোতে বহরের ১৭টি ফেরির মধ্যে ৭টি ফেরি দিয়ে পারাপার সচল রয়েছে।

দুরন্ত/৬আগস্ট/পিডি