উয়েফা সুপার কাপ চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন

দুরন্ত ডেস্ক:

করোনার মধ্যেই অবশেষে ইউরোপিয়ান ফুটবলে বুদাপেস্টের পুসকাস অ্যারেনায় ২০ হাজার দর্শককে মাঠে প্রবেশের অনুমতি দিয়েছিল উয়েফা। আর দর্শকদের কোলাহলে চাঙা স্টেডিয়ামে সেভিয়াকে ২-১ গোলে হারিয়ে উয়েফা নেশনস কাপের শিরোপা জিতেছে বায়ার্ন মিউনিখ। কোচ হ্যান্সি ফ্লিকের অধীনে পূর্ণ করেছে ‘কোয়াড্রাপল’।

বৃহস্পতিবার রাতের ম্যাচে অবশ্য প্রথমে এগিয়ে গিয়েছিল সেভিয়াই। লুকাস ওকাম্পোসের গোলের পর বায়ার্নকে সমতায় এনে দেন লেয়ন গোরেটস্কা। তবে আসল ব্যবধানটা গড়ে দিয়েছেন বদলি খেলোয়াড় হাভি মার্তিনেস। অতিরিক্তি সময়ে নেমে দলকে জয়সূচক গোলটি এনে দেন তিনি।

বাভারিয়ানরা এখন টানা ৩২ ম্যাচে অপরাজিত। গত বছরের নভেম্বরে ফ্লিক দায়িত্ব নেয়ার পর ঘরোয়া লিগ, ক্লাব ডাবল এবং চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছে বায়ার্ন মিউনিখ। সর্বশেষ তারা হার দেখেছিল ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে। এরপর ৩২ ম্যাচে ৩১ জয় এবং একটি ড্র।

ম্যাচের ১৩ মিনিটে ইভান রাকিতিচকে ডি-বক্সের মধ্যে ফেলে দেন বায়ার্ন ডিফেন্ডার দাভিদ আলাভা। স্পট কিকে দলকে এগিয়ে নিতে ভুল করেননি আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার ওকাম্পোস।

৩৪তম মিনিটে বায়ার্নকে ম্যাচে ফেরান গোরেটস্কা। সতীর্থের ক্রস ডি-বক্সের ভেতর পেয়ে ভলিতে তার সামনে বাড়ান লেভানদোভস্কি। ডান পায়ের শটে বল জালে জড়ান জার্মান মিডফিল্ডার গোরেটস্কা।

দ্বিতীয়ার্ধে ৫১ মিনিটের মাথায় আরও এক গোল পেতে পারতো বায়ার্ন। কিন্তু লেভানদোভস্কি বল জালে পাঠিয়ে উদযাপনে মাতলেও অফসাইডের কারণে গোলটি বাতিল করে দেন রেফারি।

নির্ধারিত সময়ে ১-১ সমতা ছিল দুই দলের। ফলে ম্যাচ গড়ায় অতিরিক্ত ৩০ মিনিটে। আর ওই সময়েরই ১৪ মিনিটের মাথায় গোল করে বসেন বায়ার্নের বদলি খেলোয়াড় মার্তিনেস। আলাবার শট গোলরক্ষক ঠিকমতো ক্লিয়ার করতে না পারলে ফিরতি হেডে বল জালে জড়ান স্প্যানিশ মিডফিল্ডার।

দুরন্ত/২৫সেপ্টেম্বর/পিডি