করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৬ জনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক:

দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত একদিনে আরও ৩৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৪ হাজার ৫৫২-এ।

আজ মঙ্গলবার (৮ সেপ্টেম্বর) বিকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এসময় নতুন করে আরো আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন এক হাজার ৮৯২ জন। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩ লাখ ২৯ হাজার ২৫১-এ।

এতে দেশের ৯৪টি পরীক্ষাগারের তথ্য তুলে ধরে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ১৫ হাজার ১৪২টি নমুনা সংগৃহীত হয়েছে। এর মধ্যে পরীক্ষা করা হয়েছে ১৪ হাজার ৯৭৩টি নমুনা। এ নিয়ে দেশে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হল ১৬ লাখ ৫৯ হাজার ৬৯৭টি।

একদিনে আরো ৩ হাজার ২৩৬ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। তাতে সুস্থ রোগীর মোট সংখ্যা বেড়ে দুই লাখ ২৭ হাজার ৮০৯ জন হয়েছে। অর্থাৎ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাব অনুযায়ী, দেশে এখনো অ্যাকটিভ করোনা রোগী রয়েছেন এক লাখ এক হাজার ৪৪২ জন।

গেল ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১২ দশমিক ৬৪ শতাংশ, এ পর্যন্ত শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ৮৪ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৬৯ দশমিক ১৯ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৩৮ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৩৭ জনের মধ্যে পুরুষ ১৯ জন এবং নারী ১৭ জন। এ পর্যন্ত মৃত ৪ হাজার ৫৫২ জনের মধ্যে পুরুষ ৩ হাজার ৫৫৩ জন; যা শতাংশের হিসাবে ৭৮ দশমিক ০৫ শতাংশ এবং নারী রয়েছেন ৯৯৯ জন; যা শতাংশের হিসাবে ২১ দশমিক ৯৫ শতাংশ।

মৃতদের বয়স বিভাজনে বলা হয়েছে, একদিনে মৃতদের মধ্যে ১১ থেকে ২০ বছর বয়সী রয়েছে দুজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের দুজন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের চারজন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের ছয়জন এবং ষাটোর্ধ্ব বয়সের মারা গেছেন ২২ জন।

গেল ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি মারা গেছেন যথারীতি ঢাকাতেই, ১৬ জন। এছাড়াও খুলনায় আটজন, চট্টগ্রামে ছয়জন, রাজশাহী ও বরিশালে দুজন করে এবং সিলেট ও রংপুরে একজন করে মারা গেছেন। এদের মধ্যে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন ৩৫ জন এবং বাড়িতে থেকে মারা গেছেন একজন।

গত ডিসেম্বরে চীনের উহান শহরে প্রথম আক্রান্ত শনাক্তের পর দ্রুত সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে নভেল করোনাভাইরাস। মৃত্যুপুরীতে পরিণত হয় বিশ্বের অধিকাংশ এলাকা।