‘করোনার সাথে কেমন আচরণ চাই’

অধ্যাপক মোহাম্মদ ফখরুল ইসলাম:

৮ মার্চ ২০২০ থেকে বাংলাদেশে করোনা নামক মহামারির প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়। যা বর্তমানেও তার দাপটের কমতি ঘটায়নি। বিভিন্ন চড়াই-উতরাই পার হয়ে জীবন ও জীবীকার তাগিদে আমরা করোনাকে বশ করে আমাদের সাথে মানিয়ে নিতে আপ্রাণ চেষ্টা করছি।

কিন্তু এটি আমাদেরকে ছাড়েতো আবার ধরে।কিন্তু বশে আসে না,সুযোগ বুঝে ছোবল মারে।আর এই ছোবলের আঘাতে অনেকের প্রাণ নিঃশেষ। আবার কেউ কেউ ছোবলের আঘাত থেকে রক্ষা পেলেও জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলেন, অনেকের দেহে এর প্রভাব থেকে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকবে। এই খবরও আমাদের জন্য সুখকর নয়।

★ করোনায় বর্তমান জনজীবনঃ- প্রায় ৭ মাস করোনার দোর্দন্ড প্রতাপ অব্যাহত থাকার কারণে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে।আবার জীবন ও জীবীকার তাগিদে তা ধীরে ধীরে সচল হতে থাকে। মানুষ স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যাওয়ার আকাঙ্খায় ব্যস্ত হয়ে উঠে। তাই কেউ আর ঘরে আবদ্ধ থাকতে চায় না। শহর,নগর,হাট,বাজার,গণপরিবহন, অফিস আদালত সবকিছু স্বাস্হ্যবিধি মেনে চালু করা হয়।

কিন্তু করোনার দাপট চলছে। শনাক্ত ও মৃত্যুর সংখ্যাও এখনো একেবারে কমেনি। সাধারণ মানুষ পুরোপুরি স্বাস্হবিধি মানছে না বলে প্রতীয়মান হচ্ছে।

★★ বর্তমান পরিস্থিতিতে করোনার সাথে আমাদের কেমন আচরণ করা উচিতঃ- করোনা চলছে আমরাও চলছি।এমতাবস্থায় উভয়কে সমান্তরালে চলতে হবে। যদি কোন সময় উভয়ই এক বিন্দুতে এসে যাই তাহলে মৃত্যু অনেকটা নিশ্চিত। যেমন রেল লাইনের দুই লাইন এক হলে দুর্ঘটনা নিশ্চিত। তাই লাইন এক হতে দেয়া যাবে না।

★★★ আমাদের করনীয়ঃ- জীবন ও জীবীকা সচল রাখতে হবে,আবার করোনাকেও দূরে রাখতে হবে। তাই ভ্যাকসিন আসার পূর্ব পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিধি অবশ্যই মেনে চলতে হবে।বাহিরে গেলে কোনো অবস্থাতেই মাস্ক পরিধান না করে থাকা যাবে না। হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে হবে।বারবার সাবান দিয়ে হাত ধৌত করতে হবে। শারীরিক দুরত্ব বজায় রাখতে হবে। তারপর মহান সৃষ্টি কর্তার করুণা ভিক্ষা করতে হবে।

★★ প্রকৃত অবস্থাঃ- অনেকে হাটে বাজারে,গণপরিবহনে, রাস্তাঘাটে, ব্যাংকে ও মসজিদে সরকারের স্বাস্হবিধিকে অগ্রাহ্য করছে। কারো পরামর্শকেও পাত্তা দিচ্ছে না। যা করোনা বিস্তারকে ত্বরান্বিত করবে।

★★★ আহবানঃ – আসুন আমরা সর্বত্র সরকারের স্বাস্হবিধি মেনে চলি, অন্যকে মানতে আহবান জানাই।

নিজে বাঁচি, অন্যকে বাঁচাতে সহযোগিতা করি। আমরা ও করোনা সমান্তরালে থাকলে, একদিন করোনা বিদায় নিবে ইনশাআল্লাহ।

আসুন করোনামুক্ত সমাজ গড়ি, সরকারের স্বাস্হবিধি মেনে চলি।