করোনায় মারা গেলেন শিল্পপতি হাসান মাহমুদ চৌধুরী

চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রতিনিধি:

জাতীয় পার্টির মহাসচিব ও সাবেক মন্ত্রী জিয়াউদ্দিন আহমদ বাবলুর ছোট ভাই শিল্পপতি হাসান মাহমুদ চৌধুরী ইন্তেকাল করেছেন।

সোমবার (২৮ সেপ্টেম্বর) দুপুর পৌনে ১টায় ঢাকার আনোয়ার খান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

চট্টগ্রাম মহানগরের চান্দগাঁও আবাসিক কল্যাণ সমিতির( বি ব্লক ) সভাপতি ও কাশেম-নুর ফাউন্ডেশনের কো-চেয়ারম্যান হাসান মাহমুদ চৌধুরী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন। গত ২৭ আগস্ট অসুস্থ অবস্থায় তাকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়।

২৮ আগস্ট করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে।
হাসান মাহমুদ চৌধুরীর মৃত্যুতে গভীর শোক জানিয়েছেন রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি, রাউজানের সংসদ সদস্য এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী।
তার মৃত্যুতে নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক চসিক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন শোক প্রকাশ করেছেন। তিনি মরহুমের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

হাসান মাহমুদ চৌধুরীর মৃত্যুতে গভীর শোক জানিয়েছেন চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মাহবুবুল আলম। শোক জানিয়েছেন বিজিএমইএর প্রথম সহ-সভাপতি মোহাম্মদ আবদুস সালাম।

তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন তানভীর এগ্রো লিমিটেডের পরিচালক মোঃ সিরাজুল মনির। এক শোক বার্তায় তিনি বলেন চট্টগ্রামের চান্দগাঁও আবাসিক এলাকায় উন্নয়নে সবসময়ই হাসান মাহমুদ চৌধুরী শোচ্ছার ছিলেন। গরীব দুঃখী মেহনতি মানুষের সহযোগিতাই সবসময়ই নিজেকে ব‍্যস্ত রেখেছেন।

শোক প্রকাশ করেছেন সীকম গ্রুপ ও প্রিমিয়ার সিমেন্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আমিরুল হক।

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন এক শোকবার্তায় বলেছেন, হাসান মাহমুদ চৌধুরী একজন দানশীল সমাজ হিতৈষী হিসেবে স্মরণীয় হয়ে থাকবেন।

চান্দগাঁও আবাসিক এলাকার সভাপতি হিসেবে তিনি অনেক উন্নয়ন কার্যক্রমের সঙ্গে সক্রিয়ভাবে জড়িত ছিলেন।
উল্লেখ্য, ল্যাটিন আমেরিকা বাংলাদেশ চেম্বারের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও থাই চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন হাসান মাহমুদ চৌধুরী।