কিশোরগঞ্জে নতুন করে ২৩ জনের করোনা

কিশোরগঞ্জে নতুন করে ২৩ জনের করোনা

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি:

কিশোরগঞ্জ জেলায় সর্বশেষ পাওয়া নমুনা পরীক্ষায় রিপোর্টে নতুন করে আরো ২৩ জনের দেহে করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। কিশোরগঞ্জ জেলায় করোনাভাইরাসে সংক্রমন উর্ধ্বমুখী। ফের বেড়েছে শনাক্তের, সংখ্যা।

সোমবার(২৭ জুলাই)মঙ্গলবার(২৮ জুলাই)বুধবার(২৯ জুলাই)আগের আংশিক সহ কিশোরগঞ্জ জেলায় সংগৃহীত মোট ৯৬ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট বুধবার (২৯জুলাই) রাতে পাওয়া যায়।এই ৯৬ জনের নমুনা পরীক্ষায় নতুন মোট ২৩ জনের মধ্যে করোনা ভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। বাকি ৭৩ জনের মধ্যে রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।

কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল,জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল(আইডিসিআর) পিসিআর ল্যাবে এই নমুনাসমূহ পরীক্ষা করা হয়।

ফলে এ নিয়ে করোনা ভাইরাসে কিশোরগঞ্জ জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা আরো ২৩ জন বেড়েছে।মঙ্গলবার (২৮ জুলাই)পর্যন্ত কিশোরগঞ্জ জেলায় করোনা শনাক্তের সংখ্যা ছিল ১৯৭২ জন।নতুন আরো ২৩ জন শনাক্ত হওয়ায় বর্তমানে বেড়ে দাঁড়িয়েছে১৯৯৫ জনে।এ দিকে নতুন করে জেলায় করোনা ভাইরাস থেকে সুস্থ হয়েছেন ১৯ জন।

নতুন সুস্থ হওয়া ১৯ জনের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা সবোর্চ্চ ১১ জন,তাড়াইল উপজেলায় ১ জন, পাকুন্দিয়া উপজেলায় ২ জন,কটিয়াদী উপজেলায় ১ জন,ও বাজিতপুর উপজেলায় ৪ জন রয়েছেন।

এ নিয়ে জেলায় মোট ১৭৪৫ জন সুস্থ হয়েছেন। বর্তমানে কিশোরগঞ্জ জেলায় মোট ২১৫ জন করোনা আক্রান্ত রোগী এবং ৬ জন সাসপেক্টটেড নিজ বাড়িতে ও বিভিন্ন হাসপাতালে আইসোলেশনে রয়েছেন। অন্যদিকে জেলায় শনাক্ত হওয়া মৃত ব্যক্তি ১ জন নারী (৬৫)।তিনি কুলিয়ারচর উপজেলার বাসিন্দা।

মোট মৃত ব্যক্তির সংখ্যা বেড়ে দাড়িয়েছে ৩৬ জনে।নতুন করে করোনা শনাক্ত হওয়া ২৩ জনের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় সবোর্চ্চ ১৪ জন,করিমগঞ্জ উপজেলায় ২ জন,পাকুন্দিয়া উপজেলায় ৫ জন,ও কটিয়াদী উপজেলায় ২ জন রয়েছেন।বুধবার (২৯ জুলাই )রাত ১০ টার দিকে কিশোরগঞ্জ জেলা করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ সংক্রান্ত কমিটির সদস্য সচিব সিভিল সার্জন ডাঃমোঃমুজিবুর রহমান বিষয়টি দুরন্ত নিউজকে নিশ্চিত করেছেন।

উপজেলাওয়ারী হিসেবে, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায়, ৫৬৯ জন, হোসেনপুর, উপজেলায় ৪৯ জন, করিমগঞ্জ উপজেলায় ১২০ জন, তাড়াইল উপজেলায় ৮৫ জন, পাকুন্দিয়া উপজেলায় ১০৯ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ১১৬ জন,কুলিয়ারচর উপজেলায় ১০৮ জন, ভৈরব উপজেলায় ৫৫৫ জন,নিকলী উপজেলায় ৩৯ জন, বাজিতপুর উপজেলায় ১৬২ জন, ইটনা উপজেলায় ৩২ জন, মিঠামইন উপজেলায় ৩৮ জন, ও অষ্টগ্রাম উপজেলায় ১৩ জন। করোনাভাইরাস পজেটিভ শনাক্ত হয়েছেন।

তাদের মধ্যে ৩৬ জন মৃত ব্যক্তি রয়েছেন।উপজেলাওয়ারী হিসেবে, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার ৭ জন, হোসেনপুর উপজেলার ১ জন, করিমগঞ্জ উপজেলার ২ জন, তাড়াইল উপজেলার ১ জন, কটিয়াদী উপজেলার ১ জন, কুলিয়ারচর উপজেলার ৩ জন, ভৈরব উপজেলার ১৪ জন, নিকলী উপজেলার ৩ জন, বাজিতপুর উপজেলার ২ জন, মিঠামইন উপজেলার ১ জন,ও ইটনা উপজেলায় ১ জন রয়েছেন।

সুস্থ ও মৃত ব্যক্তিদের বাদ দিয়ে বর্তমানে কিশোরগঞ্জ জেলায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ২১৪ জন।উপজেলাওয়ারী হিসাবে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ১০৯ জন,হোসেনপুর উপজেলায় ৮ জন,করিমগঞ্জ উপজেলায় ৯ জন,তাড়াইল উপজেলায় ৪ জন,পাকুন্দিয়া উপজেলায় ১৬ জন,কটিয়াদী উপজেলায় ১২ জন,কুলিয়ারচর উপজেলায় ৩ জন,ভৈরব উপজেলায় ৩৬ জন,নিকলী উপজেলায় ৭ জন,বাজিতপুর উপজেলায় ৮ জন,ইটনা উপজেলায় ১ জন,ও অষ্টগ্রাম উপজেলায় ১ জন।বর্তমানে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যাক্তি রয়েছেন।জেলার ১ টি উপজেলা মিঠামইন উপজেলা বর্তমানে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগী নেই।

দুরন্ত/২৯জুলাই/পিডি