গুনধর ইউনিয়নে প্রার্থী অনেকেই আলোচনায় রিপন

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি:

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন আসতে এখনো অনেক দেরি।কিন্তু সব মিলিয়ে কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ উপজেলার গুনধর ইউনিয়নের তানভীর আহম্মেদ রিপন যথেষ্ট আলোড়ন সৃষ্টি করছে। সাধারণ মানুষের মুখে মুখে এখন রিপনের নাম শোনা যায়। বিষয়টি রিপনের সমর্থকরা ইতিবাচক হিসেবেই দেখছে।

গুনধর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান প্রয়াত এ্যাডভোকেট আঃগফুর বেদন মীর বড় পুত্র রিপন।তার মাতা মেরিন জাহান একজন গৃহিণী।রিপন গুনধর ইউনিয়নের উরদিঘী গ্রামের বড় বাড়ির ছেলে।তিনি কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি।করিমগঞ্জ উপজেলার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ইউনিয়ন গুনধর। সব রাজনৈতিক দলের নজর থাকে এ ইউনিয়নের প্রতি।

দলীয় ভাবে উপযুক্ত প্রার্থী বাছাই ও মনোনয়ন এখানে খুব গুরুত্বপূর্ণ। শুধু প্রতীক নেয় প্রার্থীর ব্যক্তিগত যোগ্যতা ও ভাবমূর্তি এ আসনে জয়ী হওয়ার অন্যতম নিয়ামক শক্তি।সাধারণ মানুষের মধ্যে জনপ্রিয় রিপন দীর্ঘদিন যাবৎ জনসংযোগে থেকে নৌকা প্রতীকে ভোট চেয়ে যাচ্ছেন।

ভোটের মাঠে তিনি আলোচিত একজন প্রার্থী।কার ভাগ্যে জুটবে নৌকার মনোনয়ন? আলোচনায়ই চলছে উরদিঘী (মরিচখালী বাজার) থেকে প্রত্যন্ত জনপদে।

উল্লেখ্য, করোনা মহামারীর দুর্যোগে দুস্থ হতদরিদ্র কর্মহীন ও নিম্ন আয়ের মানুষ যখন দিশেহারা ঠিক তখনই মানবিক সহায়তা নিয়ে শতাধিক পরিবারের পাশে মানবিক সহায়তা নিয়ে দাঁড়িয়ে মানবতার এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। ছাত্রলীগ নেতা তানভীর আহম্মেদ মীর রিপন।মানবিক এই কার্যক্রম সম্পন্ন করে জায়গা করে নিয়েছেন হাজারো পরিবারের অন্তরে।

দুরন্ত/১৯আগস্ট/আইপি