চট্টগ্রামে মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে অতিরিক্ত বৃষ্টি, ডুবে আছে নিম্নাঞ্চল

সিরাজুল মনির, চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান:

বন্দর নগরী চট্টগ্রামে বৃহস্পতিবার মধ্যরাত থেকে টানা বৃষ্টি হচ্ছে। এতে নগরীর অনেক এলাকা পানিতে তলিয়ে গেছে। বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপ ও সক্রিয় মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে বৃষ্টি ও জোয়ারের পানিতে নগরীর নিম্নাঞ্চলে হাঁটু পানি জমেছে। এতে গত দুই দিন থেকেই দুর্ভোগে পড়েছেন নগরীর হাজার হাজার মানুষ।

পতেঙ্গা আবহাওয়া অফিসের সহকারী আবহাওয়াবিদ মেঘনাধ তঞ্চঙ্গ্যা দুরন্ত নিউজকে বলেন, ‘উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন স্থানে অবস্থানরত সুস্পষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে চট্টগ্রাম ও আশপাশের এলাকায় টানা বৃষ্টি হচ্ছে।

বাংলাদেশের উপর এখনো মৌসুমি বায়ু বলবৎ আছে। রাতভর থেমে থেমে বৃষ্টি হয়েছে, বিভাগের অনেক স্থানে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টি হচ্ছে।’

‘শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) দুপুর পর্যত গত ৩০ ঘণ্টায় পতেঙ্গা আবহাওয়া অফিস ২০৪ দশমিক ২ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করেছে।’

তিনি বলেন, ‘সুস্পষ্ট লঘুচাপটি পরবর্তীতে নিম্নচাপ/গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়ে আজ ভারতের দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশের সুন্দরবন উপকূল দিয়ে দেশে প্রবেশ করতে পারে। ফলে আজ বৃষ্টি ও ঝড়ো বাতাসের বেগ আরও বাড়তে পারে।’

এদিকে চট্টগ্রামে বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হওয়া মাঝারি বর্ষণ থেমে নেই। কখনো মুষলধারে, কখনো থেমে থেমে বৃষ্টি চলছে। টানা বৃষ্টিপাত ও জোয়ারের কারণে নগরীর নিম্নাঞ্চলের সড়ক ও অলিগলিতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। দুই নম্বর গেট, মুরাদপুর, বাকলিয়া, চকবাজার, বাদুরতলা, আগ্রাবাদসহ নগরীর বেশিরভাগ নিম্নাঞ্চলে পানি উঠে গেছে। অনেকের বাসা-বাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পানি ঢুকেছে।

সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন নগরীর আগ্রাবাদ, পাহাড়তলী, হালিশহর, পতেঙ্গা এলাকার বাসিন্দারা। এসব এলাকায় জোয়ারের কারণে জলবদ্ধাতা সৃষ্টি হয়েছে। লাগাতার বৃষ্টিপাতে পরিস্থিতি মারাত্মক আকারে ধারণ করেছে। নিম্ন আয়ের মানুষের দুর্ভোগ বাড়ছে প্রতিনিয়ত।