চল্লিশেও সুন্দরী পপি

বিনোদন প্রতিনিধি:

ঢালিউডের জনপ্রিয় নায়িকা সাদিয়া পারভীন পপি। সবাই পপি নামেই চেনে। একাধিকবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার বিজয়ী এই নায়িকার জন্মদিন আজ। শুভ জন্মদিন!

তার আর্বিভাবের সময়ে শোবিজে পাকাপোক্ত বাংলা সিনেমার দুই ভ্যানগার্ড শাবনুর ও মৌসুমী। তবুও পপি ছিলেন অনন্য। রকমারি চরিত্রে অভিনয় করে দীর্ঘ দুই যুগের বেশি সময় ধরে দাপটের সাথে কাজ করে যাচ্ছেন বাংলা সিনেমায়।

খুলনার মেয়ে পপি ১৯৯৫ সালে লাক্স আনন্দ বিচিত্রা ফটোসুন্দরী হিসেবে মিডিয়াতে তার অভিষেক ঘটে। চলচ্চিত্রে আগমনের আগে তিনি শহীদুল হক খান পরিচালিত নায়ক নাটকে ইলিয়াস কাঞ্চনের বিপরীতে অভিনয় করেন।

মনতাজুর রহমান আকবরের কুলি ছবি দিয়েই বড় পর্দায় তার অভিষেক ঘটে তার। প্রথম সিনেমায় বাজিমাত। প্রায় ৭ কোটি টাকা আয় করেছিল ওমরসানীর সাথে পর্দা ভাগ করা পপির সেই সিনেমা। আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি ঢালিউডের এই সেন্সশন কন্যাকে। নব্বই দশকের বাংলা সিনেমার শাহরুখ খ্যাত নায়ক রিয়াজের সাথে বিদ্রোহ চারদিকে করার পর আরেক ধাপ এগিয়ে যান নায়কা পপি। একে একে জুটি গড়ে তুলেন মান্না, রিয়াজ, আমিন খান, শাকিব খান সাথে।

তবে সব জুটি ছাপিয়ে নায়ক শাকিল খানের সাথে তার জুটি লুফে নেয় সিনেমাপ্রেমিরা। সোহানুর রহমান সোহানের ‘‘আমার ঘর আমার বেহেশত’ সিনেমার মাধ্যমে রুপালি পর্দায় পা রাখেন শাকিল খান। সেই ছবিতে তার নায়িকা ছিলেন পপি। জুটির প্রথম ছবিতেই এই দুই তারকার রসায়ন দর্শকরা দারুণভাবে গ্রহণ করেন। শাকিল-পপি জুটি একে একে অনেক ব্যবসা সফল ছবি উপহার দিয়েছে।

সেই সময় থেকেই তাদের সম্পর্ক নিয়ে অনেক গুজব তৈরি হয়। এ সফল জুটি এক সময় প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে বলে কথা ওঠে। তাদের নিয়ে সিনেপাড়ায় তখন অনেক কানাঘুষা ছিল। একপর্যায়ে গুজব ওঠে শাকিল-পপি গোপনে বিয়েও করেছেন। কিন্তু তার সত্যতা মেলেনি এখনও।

শোনা যায় সে সময় পপির মা ছিলেন তাদের প্রেমের ঘোরবিরোধী। এ কারণে তিনি পপিকে চোখে চোখে রাখতেন। পপিকে সময় দিতে গিয়ে শাকিলের ব্যক্তিগত ব্যস্ততা একটু বেশিই বেড়ে যায়। ফলে নির্মাতাদের ঠিকভাবে সময়ও দিতে পারতেন না তিনি। এসব কারণে মিডিয়ায় ও সিনেমাপাড়ায় শাকিল খানের ইমেজের ভাটা পড়তে থাকে। শাকিল খান ঢাকাই চলচ্চিত্রে একজন সাবেক নায়ক হিসেবেই হারিয়ে যান।

১৯৭৯ সালের ১০ সেপ্টেম্বর খুলনায় জন্ম নেওয়া এই নায়কা এখন পর্যন্ত তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। কারণে অকারণে থাকেন আলোচনা-সমালোচনায়। সাম্প্রতিক সময়ে সোশ্যাল মিডিয়া ও গণমাধ্যমে ঘুরে বেড়াচ্ছে জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা পপি ও নায়ক জায়েদ খানের বিয়ের খবর। দুই তারকার বেশ কিছু অন্তরঙ্গ ছবিও ছড়িয়ে পড়ে ফেসবুকসহ অন্যান্য মাধ্যমে। সেখানে দাবি করা হয়, ২০১৭ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি বিয়ে হয় পপি-জায়েদের। এরপর তারা ৮/১ নিউ ইস্কাটন রোডের একটি বাড়িতে একসঙ্গে থাকতেও শুরু করেন।

তবে সবই গুজব বলে উড়িয়ে দিয়েছেন দুজনেই। পপি তো বলেই দিয়েছে, ‘বিয়ের আগে আমাকে বিয়ে দেবেন না।’