টাঙ্গাইলে পৃথক দুটি সড়ক দুর্ঘটনায় সদর ও মির্জাপুরে নিহত ৫ জন ও আহত ৫ জন

রাশেদ খান মেনন, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি:

টাঙ্গাইলে পৃথক দুটি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৫ জন ও আহত হয়েছে ৫ জন। সদর উপজেলার আশেকপুর বাইপাস ও মির্জাপুর উপজেলার পাকুল্লা বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় ১৯ মে বুধবার সকালে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

টাঙ্গাইলে দুই সিএনজি মুখোমুখি সংঘর্ষে একজন সাব ঠিকাদার’সহ দুইজন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আরো চারজন আহত হয়েছে। সদর উপজেলার আশেকপুর বাইপাসের ইন্দুটিয়া এলাকায় ১৯ মে বুধবার এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, ভূঞাপুর উপজেলার রামপুর গ্রামের মৃত মতিউর রহমানের ছেলে খন্দকার আফজাল হোসেন (৩৮) ও অপরজনের নাম পরিচয় পাওয়া যায়নি। আহতরা হচ্ছেন, ভূঞাপুর উপজেলার রামপুর গ্রামের সূর্যক্রান্তির ছেলে লক্ষন (৩৫), জীবন (৩৫), মধুপুর উপজেলার বেরীবাইদ গ্রামের সামাদ মিয়ার ছেলে জুলহাস (৩২) ও কুড়িগ্রামের চিলমারী এলাকার ওয়াহেদ (৪৫)।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী মো. রাজু তালুকদার জানান, মহাসড়কের পাশ দিয়ে সিএনজি যোগে টাঙ্গাইল শহরের দিকে আসার সময় আশেকপুর বাইপাস এলাকায় পৌঁছলে এক মোটরসাইকেলকে সাইড দিতে গিয়ে আরেক সিএনজির সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই দুইজন নিহত হয়।

পরে আহত অবস্থায় চারজনকে টাঙ্গাইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। টাঙ্গাইল সদর হাসপাতালের পুলিশ বক্সের ইনচার্জ মো. নবীন বলেন, আইনী প্রক্রিয়া শেষে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

অপরদিকে টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে দাঁড়িয়ে থাকা কাভার্ডভ্যানের পেছনে মাইক্রোবাসের ধাক্কায় তিন জন নিহত হয়েছে। এতে আহত হয়েছেন আরও একজন। ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের মির্জাপুর উপজেলার পাকুল্যা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ১৯ মে বুধবার ভোরে এ ঘটনা ঘটে। গোড়াই হাইওয়ে থানার ওসি মোজাফ্ফর হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নিহতরা হলেন- মাইক্রোবাস চালক হাসান (৩০), চালকের সহকারী ইমন (২৫) ও যাত্রী গোলাম মওলা শামীম (২৪)। এ ঘটনায় আহত মাইক্রোবাসের যাত্রী মীমকে (২০) কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহত চালক ও সহকারীর বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আখাউড়া এলাকায়। নিহত শামীম ও আহত মীম সম্পর্কে স্বামী-স্ত্রী। তাদের বাড়ি জয়পুরহাট জেলার আক্কেলপুর উপজেলায়।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, ঢাকাগামী একটি কাভার্ডভ্যান মহাসড়কের পাকুল্যা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পার্কিং করা ছিল। এসময় ঢাকাগামী একটি মাইক্রোবাসের চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা ওই কাভার্ডভ্যানের পেছনে ধাক্কা দেয়। এসময় মাইক্রোবাসের চালকসহ তিন জন ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান।

আহত অবস্থায় একজনকে কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গোড়াই হাইওয়ে থানার ওসি মোজাফ্ফর হোসেন বলেন, ‘কাভার্ডভ্যানটি মহাসড়কের পাশে পার্কিং করা ছিল। এসময় মাইক্রোবাসটি এসে কাভার্ডভ্যানের পেছনে ধাক্কা দেয়।

এঘটনায় মাইক্রোবাসে থাকা তিন জন ঘটনাস্থলেই মারা যান। আহত অবস্থায় একজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।’ নিহতদের লাশ আইনি প্রক্রিয়া শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে জানান তিনি।