ধর্ষণের শিকার পাঁচ বছরের শিশু!

জামালপুর প্রতিনিধি:

পাঁচ বছরের এক মেয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যায় প্রতিবেশী দুই স্কুলছাত্র শিশুটিকে ধর্ষণ করেছে বলে শিশুটির বাবা অভিযোগ করেছেন।

তাদের বাড়ী জামালপুর সদরের লক্ষ্মীরচর ইউনিয়নের উত্তরপাড়া গ্রামে। শিশুটির বাবা
দরিদ্র কৃষক।

গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় ওই শিশুটিকে জামালপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে সোমবার রাতেই বিজয় নামের একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

শিশুটির দরিদ্র বাবার অভিযোগ, সোমবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে তিনি এবং তার স্ত্রী বাড়িতে ছিলেন না। এই সুযোগে প্রতিবেশী স্বপন আলীর ছেলে বিজয় (১৪) ও আজিজুল হকের ছেলে আলমগীর (১৭) তার পাঁচ বছর বয়সের মেয়েকে ফুসলিয়ে বিজয়দের ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ সময় বিজয়দের বাড়ির লোকজন টের পেয়ে ওই ঘরে যাওয়ার চেষ্টা করলে আলমগীর ও বিজয় শিশুটিকে বিছানায় ফেলে রেখে দ্রুত সেখান থেকে কেটে পড়ে।

সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় ধর্ষণের শিকার শিশুটিকে জামালপুর সদর হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ওই বিজয় ও আলমগীরকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করবেন বলে শিশুটির বাবা জানান।

এদিকে সোমবার রাত ১২টার দিকে লক্ষ্মীচর ইউনিয়নের উত্তরপাড়ায় অভিযান চালিয়ে ধর্ষণের ঘটনার সঙ্গে জড়িত দুই স্কুলছাত্রের মধ্যে বিজয়কে আটক করেছে স্থানীয় বারুয়ামারী তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ।

জামালপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সালেমুজ্জামান বলেন, শিশুটিকে নিয়ে তার বাবা-মা থানায় এসেছিলেন। তাদের কাছ থেকে বিস্তারিত শুনেছি। শিশুটি বর্তমানে জামালপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। রাতে অভিযান চালিয়ে বিজয়কে আটক করা হয়েছে। তার সহযোগী আলমগীরকে ধরতে পুলিশ কাজ করছে। আজ মঙ্গলবার সকালে শিশুটির বাবা থানায় অভিযোগ দেবেন। অভিযোগ পেলে তা মামলা হিসেবে রুজু করে পরবর্তী আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

জামালপুর সদর হাসপাতালের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ মাহফুজুর রহমান বলেন, ধর্ষণের শিকার শিশুটিকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য তার ভেজাইনাল সোয়াব সংগ্রহ করা হয়েছে।