নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবসে মহিলা ফোরামের মানববন্ধন

বগুড়া প্রতিনিধি :

আজ সোমবার ২৪ আগস্ট নারী নির্যাতন প্রতিরোধ ( ইয়াসমিন হত্যা ) দিবস উপলক্ষ্যে বগুড়ায় সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরাম বগুড়া জেলা শাখা মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে। শহরের সাতমাথায় বেলা সাড়ে ১১টায় সাতমাথায় মানববন্ধন-সমাবেশ সংগঠনের জেলা আহবায়ক দিলরুবা নূরীর সভাপতিত্বে হয়।

মানববন্ধন সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরাম জেলা সদস্য রাধা রাণী বর্মন, রেনু বালা, আখলিমা খাতুন,সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট জেলা সভাপতি ধনঞ্জয় বর্মন, নিয়তী সরকার প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

মানববন্ধন সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, ২৪ আগস্ট নারী নির্যাতন প্রতিরোধ (ইয়াসমিন হত্যা) দিবস। ১৯৯৫ সালের এ দিনে ঢাকা থেকে বাড়ি ফেরার পথে পুলিশ কর্তৃক ধর্ষিত হয়ে খুন হয়েছিল দিনাজপুরের ইয়াসমিন। এর বিরুদ্ধে গড়ে ওঠে তীব্র আন্দোলন। কিশোরী ইয়াসমিন কাজ করত ঢাকা শহরে।

গরিব পরিবারে মেয়েটি কেবল মাত্র চতুর্থ শ্রেণী পর্যন্ত পড়তে পেরেছিল। স্বপ্ন ছিল কাজ করে টাকা জমিয়ে আরো পড়াশুনা করার। সেই স্বপ্ন কে বুকে নিয়েই দিনাজপুরের প্রত্যন্ত গ্রাম থেকে পাড়ি দিয়েছিল রাজধানী ঢাকায়। ২৩ আগষ্ট ’৯৫ ঢাকা থেকে বাড়িতে ফিরছিল ইয়াসমিন।

ভুল গাড়িতে উঠে পরে তাই দিনাজপুরের দশমাইল মোড়ে ভোরের আলো ফোটার আগেই ইয়াসমিনকে নামিয়ে দিলে পুলিশের একটি পিকআপ ভ্যান বাড়ি পৌঁছে দেয়ার আশ্বাস দিয়ে পিকআপে তুলে নিয়ে গিয়ে ইয়াসমিনকে পুলিশ সদস্যরাই প্রথমে পালাক্রমে ধর্ষণ এবং পরে হত্যা করে কিশোরী ইয়াসমিনকে।

পরদিনই দিনাজপুরে এ হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশের গুলিতে প্রাণ দিল অকুতোভয় সাতজন সংগ্রামী মানুষ। আন্দোলনের প্রেক্ষিতে ১৯৯৭ সালে বিচারে ধর্ষক ও খুনিদের ফাঁসির রায় হয়। রায় কার্যকর করা হয় ২০০৪ সালে সম্বিলিত নারী সমাজের পক্ষ থেকে ২৪ আগস্ট নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবস হিসেবে ঘোষণা করা হয়। বাংলাদেশের জনগণকেই এই দুর্বিসহ অবস্থার পরিবর্তনে অগ্রণী ভূমিকা রাখতে হবে। তাই নেতৃবৃন্দ এই পরিস্থিতির পরিবর্তনে সামাজিক ও গণপ্রতিরোধ আন্দোলন গড়ে তোলার আহবান জানান।