না.গঞ্জে মসজিদে এসি বিস্ফোরণ, মুয়াজ্জিনসহ নিহত ১২

মোহাম্মদ ইমন, নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

নারায়ণগঞ্জ জেলার ফতুল্লায় মসজিদে এসি বিস্ফোরণের ঘটনায় এ পর্যন্ত ১২ জন মারা গেছেন। আজ শনিবার (৫ সেপ্টেম্বর) সকালবেলা মৃত্যুর বিষয় নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক ইনস্টিটিউটের সমন্বয়কারী ডা. সামন্ত লাল।

ডা. সামন্ত লাল সেন সাংবাদিকদের জানান, নারায়ণগঞ্জে এ পর্যন্ত এসি বিস্ফোরণের ঘটনায় ঐ মসজিদের মুয়াজ্জিন এবং শিশুসহ মোট ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতরা হলেন- মোয়াজ্জিন দেলোয়ার হোসেন (৪৮), রিফাত (১৮), কুদ্দুস ব্যাপরী (৭২), মোস্তফা কামাল (৩৪), জুনায়েদ (১৭), রাসেল (৩৪), ইব্রাহিম (৪৩), জুবায়ের (১৮), সাব্বির (২১), হুমায়ুন কবির (৭০), জামাল (৪০), ও জুয়েল (৭)।

জেলার ফতুল্লার পশ্চিম তল্লা বাইতুস সালাম জামে মসজিদে গতকাল এশার নামাজ শেষে মোনাজাত চলাকালেই বিকট শব্দে একাধিক এসির বিস্ফোরণ ঘটে। মুহূর্তেই আগুন ছড়িয়ে যায় মসজিদের ভেতরে। ওই সময়ে মসজিদে থাকা মুসল্লীদের গায়ে আগুনের ফুলকি গিয়ে পড়লে একে একে দগ্ধ হতে থাকে মুসল্লীরা।

পরে আশেপাশের লোকজন গিয়ে তাদের উদ্ধার করে। উদ্ধার হওয়া অনেকের শরীরের কাপড় ছিল না। আগুনে পুড়ে যায় শরীরের কাপড়গুলো। আহতদের প্রথমে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে আনার পর তাদেরকে চিকিৎসার জন্য ঢাকার বার্ণ ইউনিটে পাঠানো হয়।

নারায়ণগঞ্জ জেলা সিভিল সার্জন ডা. ইমতিয়াজ গণমাধ্যমে জানান, মসজিদে এসি বিস্ফোরণের ঘটনায় অগ্নিদগ্ধের মধ্যে ২০জনকে আশংকাজনক অবস্থায় ঢাকা পাঠানো হয়েছে।

তাদের শরীরের বেশির ভাগ অংশ পুড়ে গেছে। পশ্চিম তল্লা বাইতুস সালাম জামে মসজিদের সামনে বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমার ও এসি বিস্ফোরণের ঘটনায় ইমাম ও মুয়াজ্জিনসহ ৩৭ জনকে আশংকাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে আনা হয়েছে।