পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (স:) আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক:

আজ শুক্রবার পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (স:)। বিশ্বনবী হজরত মুহাম্মদ (স:)-এর জন্ম ও মৃত্যুর দিন। ৫৭০ খ্রিস্টাব্দের ১২ রবিউল আউয়াল আরবের মক্কা নগরীতে জন্মগ্রহণ করেছিলেন বিশ্ববাসীর জন্য আল্লাহর পক্ষ থেকে রহমতস্বরূপ এই মহামানব।

জাহেলিয়াতের সেই যুগে মানুষকে আলোর পথ দেখিয়ে ৬৩ বছর বয়সে একই দিনে তিনি ইন্তেকাল করেন।

মহানবী (স:)-এর জন্ম ও মৃত্যুর এ দিনটি সারা বিশ্বের মুসলমানদের কাছে মর্যাদা ও তাৎপর্যপূর্ণ।

মুসলমানরা এ দিনটি উদযাপন করেন বিশেষ গুরুত্বের সঙ্গে। বরাবরের মতো এবারও সারা দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমান ইবাদত-বন্দেগি, মিলাদ, জসনেজলুশ, আলোচনা ও দোয়া মাহফিলসহ বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দিবসটি উদযাপন করবেন।

রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশে যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্যদিয়ে গতকাল সন্ধ্যা থেকেই ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (স:) উপলক্ষে মসজিদে-মসজিদে এবং নিজ-নিজ বাসায় কোরআন খতম ও জিকির আসকারের মাধ্যমে মহান রাব্বুল আলামিন ও তার প্রিয় হাবিব মহানবী হজরত মুহাম্মদ (স:)-এর বিশেষ রহমত কামনা করেন। পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (স:) উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আলাদা বাণী দিয়েছেন। বাণীতে তারা দেশবাসীসহ বিশ্বের মুসলিম উম্মাহর প্রতি আন্তরিক শুভেচ্ছা ও মোবারকবাদ জানিয়েছেন।

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (স:) উপলক্ষে ইসলামিক ফাউন্ডেশন বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশের ব্যবস্থা নিয়েছে। এছাড়াও দেশের সব বিভাগ, জেলা, উপজেলাসহ সরকারি-বেসরকারি সংস্থাগুলোর উদ্যোগে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (স:)-এর জীবনীর ওপর পক্ষকালব্যাপী আলোচনা সভা ও মাহফিলসহ বিশেষ কর্মসূচি বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকেই পালন শুরু হয়েছে।

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (স:) উপলক্ষে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বাণী দিয়েছেন।

এ উপলক্ষে আজ সরকারি ছুটি। বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বাংলাদেশ বেতার দিবসটির গুরুত্ব তুলে ধরে বিশেষ অনুষ্ঠান সম্প্রচার করছে। এছাড়াও সরকারি-বেসরকারি ভবন সন্ধ্যা থেকেই আলোকসজ্জায় সজ্জিত করা হয়। এদিকে, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের (ইফা) উদ্যোগে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে শুরু হয়েছে পক্ষকালব্যাপী অনুষ্ঠানমালা।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে পক্ষকালব্যাপী এ অনুষ্ঠানমালার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

পক্ষকালব্যাপী অনুষ্ঠানমালার মধ্যে রয়েছে ১৫ দিনব্যাপী ওয়াজ ও মিলাদ মাহফিল জুম, ফেসবুক, ইউটিউবের মাধ্যমে সরাসরি সম্প্রচার; বাংলাদেশ বেতারের সঙ্গে যৌথ প্রযোজনায় সপ্তাহব্যাপী সেমিনার; স্কুল, কলেজ, আলিয়া, কওমি মাদ্রাসা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের অংশগ্রহণে জুমের মাধ্যমে ইসলামী সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা, কিরাত মাহফিল, হামদ-না’ত ও স্বরচিত কবিতা পাঠের আসর, জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশ, ‘পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (স:) স্মরণিকা’ প্রকাশ, ৩০ অক্টোবর শুক্রবার বাদ জুমা বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদসহ দেশের সব মসজিদে দোয়া ও মোনাজাত, মাসব্যাপী ৩৫% কমিশনে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বই বিক্রয় ও গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধি কমপ্লেক্সে পবিত্র কোরআনখানি ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন।

এছাড়া ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সব বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়, ৫০টি ইসলামিক মিশন ও সাতটি ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমিতে বিভিন্ন অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করা হয়েছে।