পানিতে ডুবে নিখোঁজের ২৭ ঘন্টা পর শিক্ষকের লাশ উদ্ধার


শেরপুর প্রতিনিধি:

শেরপুরে বন্যার পানি দেখতে গিয়ে পানিতে ডুবে নিখোঁজ হওয়ার ২৭ ঘন্টা পর নাঈমুর রহমান নাঈম (২৪) নামে এক বেসরকারি স্কুলের শিক্ষকের লাশ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের ডুবুরিরা। ২৭ জুলাই (সোমবার) বিকেলে সদর উপজেলার বেতমারি খুনুয়া বাজার এলাকার বদুনী বিলের কচুরিপানার নিচ থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

নাঈম ভাতশালা ইউনিয়নের সাপমারী এলাকার শহীদুল ইসলামের ছেলে। সে এবার শেরপুর সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে রসায়ন বিভাগ থেকে অনার্স পাশ করে ভীমগঞ্জের একটি প্রাইভেট স্কুলে শিক্ষকতা করতো।

স্থানীয়রা জানায়,২৬ জুলাই (রবিবার) দুপুর ১টার দিকে নাঈম ও তার বন্ধু-বান্ধব মিলে বদুনী বিলে বন্যার পানি দেখতে যায়। ওইসময় বন্ধুরা সবাই পানিতে নামলেও সাঁতার না জানা নাঈম হাটু পানিতে দাড়িয়ে ছিল। হঠাৎ পানির স্রোতে নাঈমের পায়ের নিচের মাটি ভেঙ্গে গেলে নাঈম পানিতে ভেসে যায়।

পানির স্রোত তীব্র থাকায় মুহূর্তেই নাঈম পানিতে হারিয়ে যায়। বন্ধু-বান্ধব ও স্থানীয়রা অনেক খোঁজাখুজি করেও তাকে না পেলে খবর দেওয়া হয় ফায়ার সার্ভিসকে। ২৬ জুলাই (রবিবার) বিকেল সাড়ে ৫টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত ময়মনসিংহ-শেরপুরের ডুবুরি দল, ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ অব্যাহত চেষ্টা চালিয়ে তাকে খুঁজে না পেয়ে উদ্ধার অভিযান স্থগিত করে।

পরদিন ২৭ জুলাই (সোমবার) ভোর থেকেই বৈরী আবহাওয়া থাকায় বিলম্বে ডুবুরি দল খোঁজা শুরু করার পর বিকেল ৫টার দিকে বদুনী বিলের কচুরিপানার নিচ থেকে নাঈমের লাশ উদ্ধার করে ডুবুরি দল।

শেরপুর ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের ডিএডি জাবেদ হোসেন মুহাম্মদ তারেক শিক্ষক নাঈমের লাশ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।