পাপিয়ার বিচার শুরু হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক:

অস্ত্র আইনের মামলায় যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত নেত্রী শামীমা নূর পাপিয়া ও তাঁর স্বামী মফিজুর রহমানের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে শুরু হলো আসামিদের আনুষ্ঠানিক বিচার।

গতকাল রবিবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশের আদালত আসামিদের অব্যাহতির আবেদন নাকচ করে তাঁদের বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য ৩১ আগস্ট দিন ধার্য করেন। এর আগে তাঁদের দুজনকে আদালতে হাজির করা হয়।

পরে অভিযোগ গঠন শুনানিতে আসামিপক্ষের আইনজীবীরা তাঁদের নির্দোষ দাবি করে মামলা থেকে অব্যাহতি চান। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা তাঁদের আবেদনের বিরোধিতা করেন।

আসামিপক্ষের আইনজীবী এ এফ এম গোলাম ফাত্তাহ বলেন, ‘রাজনীতি থেকে বিতাড়িত করতে তাঁদের বিরুদ্ধে অস্ত্র মামলা দেওয়া হয়েছে। এই মামলা মিথ্যা, বানোয়াট ও সাজানো, যার কোনো ভিত্তি নেই। এমনকি অস্ত্রটির প্রকৃত মালিক কে, সেটি মামলার এজাহার, অভিযোগপত্র ও রিমান্ড প্রতিবেদনেও আসেনি। আমরা এই মামলার আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে যাব।’

সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) আইনজীবী আব্দুল্লাহ আবু বলেন, ‘আসামিপক্ষের আইনজীবী বলেছেন, এটা রাজনৈতিক প্রতিহিংসার মামলা। কিন্তু এখানে এ ধরনের কোনো গন্ধ নেই। আর কে কোন দল করল, সেটা বিষয় না। আইন সবার জন্য সমান, কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নয়।’