‘পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর উন্নয়নকে প্রাধান্য দেয়া হবে’

নিজস্ব প্রতিবেদক:

সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ বলেছেন, সমাজের সকল শ্রেণীর মানুষকে উন্নয়ন কর্মকান্ডের আওতায় নিয়ে আসতে হবে। পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে বাদ দিয়ে উন্নয়নের কাঙ্খিত লক্ষ্যমাত্রা অর্জন সম্ভব নয়। সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর উন্নয়নকে প্রাধান্য দেয়া হবে।

মন্ত্রী আজ ভার্চুয়্যাল প্ল্যাটফর্ম জুম-এ জেলা প্রশাসন, খুলনা আয়োজিত খুলনা জেলার দাকোপ উপজেলায় বানিশান্তার যৌনপল্লীর শিশুদের আবাসিক শিক্ষা ও পুনর্বাসনের উদ্দেশ্যে প্রাথমিক বিদ্যালয় সম্প্রসারণ ও হোস্টেল নির্মাণ কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

জেলা প্রশাসক খুলনা মোহাম্মদ হেলাল হোসেন পি এ এ -এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পঞ্চানন বিশ্বাস এম পি, হুইপ, একাদশ জাতীয় সংসদ, গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার এম পি, মহিলা আসন-৩০ ও আব্দুর রহমান, পরিচালক, সমাজসেবা, খুলনা।

মন্ত্রী বলেন, জেলা প্রশাসন খুলনার কর্তৃক গৃহীত যৌন পল্লীর শিশুদের শিক্ষার মাধ্যমে পূণর্বাসনের এ উদ্যোগটি পিছিয়ে পড়া অবহেলিত জনগোষ্ঠীর জীবনমানোন্নয়নে দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। সরকারি কর্মচারিগণ কর্তৃক গৃহীত এ সকল ব্যাতিক্রমী জনকল্যাণকর উদ্যোগ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে আরো শক্তিশারী করবে।

মন্ত্রী আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশ পরিচালনায় যে দক্ষতার স্বাক্ষর রেখে যাচ্ছেন, সারা বিশ্বে আজ তা প্রশংসিত হচ্ছে। অসহায় ও পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক গৃহীত সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচী সমুহ বাস্তবায়নে তিনি সকলকে সম্মিলিতভাবে কাজ করার আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, প্রায় এক কোটি ষাট লাখ টাকা ব্যায়ে খুলনা জেলার দাকোপ উপজেলার শতাব্দি প্রাচীন বানিশান্তা যৌনপল্লীর শতাধিক পরিবারের শিশুদের শিক্ষা প্রদান নিশ্চিতে প্রাথমিক বিদ্যালয় সম্প্রসারণ ও হোস্টেল নির্মিত হচ্ছে।
পরে মন্ত্রী প্রাথমিক বিদ্যালয় সম্প্রসারণ ও হোস্টেল নির্মাণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।