প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে গিয়ে যুবক কারাগারে

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার পূর্ব চরবাটা ইউনিয়নে পূর্ববিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের লোকজনকে ঘায়েল করার উদ্দেশ্যে মদ দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে উল্টো নিজে ফেঁসে গেলেন জামসেদ উদ্দিন সোহাগ (৩৬) নামের এক যুবক।

শুক্রবার দুপুরে এ ঘটনায় পুলিশের এসআই নূর ইসলাম বাদী হয়ে জামসেদ উদ্দিনের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা দায়ের করেছে।

গ্রেপ্তারকৃত জামসেদ উদ্দিন সোহাগ হাজীপুর গ্রামের সাহাব উদ্দিনের ছেলে। তিনি নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের গাড়িচালক।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পূর্ব চরবাটা ইউনিয়নের হাজীপুর গ্রামের বাসিন্দা জামসেদ উদ্দিন সোহাগের সাথে পার্শ্ববর্তী জহির উদ্দিনের সাথে জায়গা জমি নিয়ে পারিবারিক বিরোধ ছিল।

বৃহস্পতিবার রাতে জহির স্থানীয় সমিরহাট বাজার দিয়ে যাচ্ছিলেন। এ সময় তাকে পেছন থেকে ধরে একটি বাজারের ব্যাগ তার হাতে ধরিয়ে দেন জামসেদ। যাতে সাড়ে ৩ লিটার মদ ছিল। পরে জহির মাদক ব্যবসা করে বলে লোকজন জড়ো করে তাকে মারধর করে মাদকসহ পুলিশে সোপর্দ করে জামসেদ।

চরজব্বার থানার ওসি জিয়াউল হক জানান, জহিরকে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদের পর বিষয়টি সন্দেহজনক হলে রাতেই অভিযান চালিয়ে জামসেদকে গ্রেপ্তার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জামসেদ তার অপরাধ স্বীকার করেছে। ঘটনায় তার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

দুরন্ত/৬মার্চ/পিডি/এসএম