প্রতিবাদ কর্মসূচির ডাক বিএনপির

নিজস্ব প্রতিবেদক:

রবিবার সারাদেশে বিএনপি প্রতিবাদ কর্মসূচির ডাক দিয়েছে। ভোটে অনিয়ম ও মিথ্যা মামলায় নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে শনিবার প্রেসক্লাবে ও রবিবার সারাদেশের সব জেলা শহরে প্রতিবাদ সমাবেশ পালনের ডাক দিয়েছে তারা।

শুক্রবার দুপুরে গুলশানে বিএনপি চেয়াপারসনের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর কর্মসূচির ঘোষণা দেন।

এর আগে সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে মিট দ্যা প্রেস অনুষ্ঠানে মির্জা ফখরুল বাসে আগুন লাগার ঘটনা ন্যাক্কারজনক বলে উল্লেখ করেন।

এ ঘটনার তীব্র ভাষায় নিন্দা জানান তিনি। বিএনপিকে নিশ্চিহ্ন করার পাঁয়তারা চলছে বলে অভিযোগ করে তিনি বলেন, ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের বক্তব্য হাস্যকর। নির্বাচন ব্যবস্থার দুর্বলতা স্পষ্ট। নির্বাচন ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ভেঙ্গে দিয়েছে সরকার। বর্তমান সঙ্কটটা গণতন্ত্রের। গণতন্ত্র নেই বলেই কোনো জবাবদিহিতা নেই।

রাজধানীতে বাস পোড়ানোর ঘটনাকে ভালো আন্দোলন বাধাগ্রস্ত করতে ‘সরকারি এজেন্টদের স্যাবোটাজ’ বলে দাবি করেন মির্জা ফখরুল।

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় বৃহস্পতিবার বাসে আগুন দেওয়ার ঘটনায় নয়টি মামলা হয়েছে। এসব মামলায় আসামি করা হয়েছে ৪৪৬ জনকে। এতে আটক করা হয়েছে ২০ জনকে।

মতিঝিল, শাহবাগে ও পল্টন থানায় দুটি করে এবং বংশাল, ভাটারা ও কলাবাগানে একটি করে মামলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার সকালে এসব মামলা হয়।

এদিন অনুষ্ঠিত ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে বাসে অগ্নিসংযোগের এসব ঘটনা ঘটানো হয়েছে বলে ধারণা করছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাতে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত দপ্তর সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স সাংবাদিকদের বলেন, আগুনের ঘটনার বিষয়ে আমরা কিছুই জানি না। কারা এসব ঘটনা ঘটিয়েছে তা আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো নিরপেক্ষভাবে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেবে বলে আশা করছি। তবে কেন্দ্রীয় অফিস থেকে বের হওয়ার সময় ফরিদপুর বিভাগীয় বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক খন্দকার মাসুকুর রহমানসহ ১০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।