‘প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করতে ঐক্যবদ্ধ হোন’

যবিপ্রবি সংবাদদাতা:

সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মধ্যে রান্না করা খাবার বিতরণ, বৃক্ষরোপণ, কেক কাটা, কর্মচারীদের মধ্যে পুনর্ব্যবহার উপযোগী মাস্ক বিতরণসহ নানা কর্মসূচিতে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (যবিপ্রবি) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন পালন করা হয়েছে।

সোমবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত যবিপ্রবিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন উপলক্ষে এসব অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

করোনা মহামারির কারণে সীমিত পরিসরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এসব কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে অতীতে নিজেদের মধ্যকার সকল ভেদাভেদ ভুলে প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করতে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সকল সদস্যের প্রতি আহ্বান জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন।

শেখ হাসিনা ছাত্রী হল প্রাঙ্গণে কেক কাটার মাধ্যমে যবিপ্রবিতে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয় সকাল সাড়ে ৯টায়। এ সময় যবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. আব্দুল মজিদ, শেখ হাসিনা ছাত্রী হলের প্রভোস্ট ড. সেলিনা আক্তার, রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. আহসান হাবীবসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের জ্যেষ্ঠ শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন।

সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাংলো প্রাঙ্গণে দুটি ফলদ বৃক্ষের চারা রোপণ করা হয়। এরপর সকাল সোয়া ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্যালারিতে যবিপ্রবি শিক্ষক সমিতি প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে কেক কাটে।

এ সময় যবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. ইকবাল কবীর জাহিদ, সহ-সভাপতি অধ্যাপক ড. সাইবুর রহমান মোল্যা, সাধারণ সম্পাদক ড. প্রকৌশলী মো. আমজাদ হোসেনসহ বিভিন্ন অনুষদের ডিন, চেয়ারম্যান ও দপ্তর প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন।

একই সময় শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘শিক্ষকগণ আপনারা এক হোন। তাহলেই এ বিশ্ববিদ্যালয় এগিয়ে যাবে। তা না হলে বিশ্ববিদ্যালয় এগোবে না।’

পরে আলোচনা পর্ব শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেমিকৌশল বিভাগের চেয়ারম্যান ড. জাভেদ হোসেন খানের পরিচালনায় দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

বেলা ১১টায় প্রশাসনিক ভবনের নিচে যবিপ্রবি কর্মকর্তা সমিতির আয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মচারীদের মধ্যে উন্নতমানের পুনর্ব্যবহার উপযোগী মাস্ক বিতরণ করা হয়। এ সময় মাস্ক বিতরণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন যবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন। প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তত্ত্বাবধানে পুনর্ব্যবহার উপযোগী ওই মাস্ক তৈরি করা হয়।

কর্মকর্তা সমিতির সভাপতি প্রকৌশলী হেলাল উদ্দিন পাটোয়ারিসহ এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহেদ রেজা, অর্থ সম্পাদক পার্থ সারথি দাস, ক্রীড়া, সাংস্কৃতিক ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক মো. আব্দুর রাজ্জাক, কর্মচারী সমিতির প্রধান উপদেষ্টা মছুয়াদ আলী প্রমুখ।

এ দিকে, বাদ জোহর বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদে শিক্ষক সমিতির আয়োজনে শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে দোয়া-মোনাজাতের আয়োজন করা হয়। দোয়া-মোনাজাত পূর্ব সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন- যবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. আব্দুলমজিদ, শিক্ষক সমিতির সহ-সভাপতি অধ্যাপক ড. সাইবুর রহমান মোল্যা, কর্মকর্তা সমিতির সভাপতি প্রকৌশলী হেলাল উদ্দিন পাটোয়ারি, ছাত্রলীগ নেতা আফিকুর রহমান অয়ন প্রমুখ।

পরে প্রধানমন্ত্রীর দীর্ঘায়ু কামনায় বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় দোয়া-মোনাজাত পরিচালনা করেন যবিপ্রবির কেন্দ্রীয় মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা মো. আকরামুল ইসলাম।

পরে দুপুরে সোয়া ২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের দোগাছিয়া বাহ্‌রুল উলুম কওমিয়া মাদরাসায় যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের আয়োজনে সুবিধাবঞ্চিত দেড় শতাধিক শিশু ও ব্যক্তিদের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণ করা হয়। একই সঙ্গে মাদরাসা প্রাঙ্গণে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে বেশ কয়েকটি ফলদ বৃক্ষের চারাও রোপণ করা হয়।

এ সময় যবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. ইকবাল কবীর জাহিদ, সাধারণ সম্পাদক ড. প্রকৌশলী মো. আমজাদ হোসেন, যবিপ্রবি ছাত্রলীগ নেতা আফিকুর রহমান অয়ন, সোহেল রানা, নাজমুস সাকিব, নাজমুল হাসান পলাশ, শিলা আক্তার, রুহুল কুদ্দুস রোহিত, নূর মোহাম্মদ টনি, সাংবাদিক সমিতির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হোসাইন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।