ফতুল্লায় গৃহবধূকে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ৩

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

নারায়ণগঞ্জের সদর উপজেলাধীন ফতুল্লায় স্বামীকে খুঁজতে গিয়ে এক গৃহবধূ (৩৫) গণধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় ৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টা ফতুল্লার মুসলিম নগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

গ্রেফতারকৃতরা হলো ফতুল্লা থানার শাসনগাঁওয়ের মৃত আহম্মদ আলীর ছেলে ও স্থানীয় নিরাপত্তা কর্মী নুরুল ইসলাম (৬৫), মুসলিমনগর কাওয়াপাড়ার অক্ষয় মহন্তের ছেলে রিক্সা চালক রাজ বল্পভ (৬২) এবং নরসিংপুর স্কুলের পিছনের লাল মিয়ার ছেলে চায়ের দোকানদার আইনূল মিয়া (২২)।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ঐ নারী বাদি হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় গত শুক্রবার রাতে তিন জনের নাম উল্লেখ্যসহ অজ্ঞাত নামা আরও এক জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ভুক্তভোগী ঐ গৃহবধূর স্বামী একজন অটোরিক্সা চালক। তার স্বামী মুসলিমনগর এতিমখানা এলাকায় একটি অটোরিক্সার গ্যারেজে তার রিক্সা রাখেন। গত দুই দিন পূর্বে তার সাথে তার স্বামীর ঝগড়া হয় ফলে তার স্বামী তার পুত্র সিয়ামকে নিয়ে বাসা
থেকে রাগ করে বেরিয়ে যায়। পরবর্তীতে বাসায় ফিরে না আসায় সে গত বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে স্বামী এবং সন্তানের খোঁজে মুসলিমনগর এতিমখানা এলাকায় অবস্থিত সেই রিক্সার গ্যারেজে খুঁজতে যায়।

তাদের না পেয়ে ফিরে আসার পথে গ্রেফতারকৃতরাসহ অপর এক ধর্ষক তাকে নরসিংপুর প্রাইমারী স্কুলের সামনে পথরোধ করে। নির্জন এলাকা পেয়ে তারা তাকে স্কুলের বাউন্ডারির ভিতরের পিছনে নিয়ে যায়। পরে ওই গৃহবধূকে হত্যার হুমকি দিয়ে জোর করে ধর্ষণ করে। ধর্ষণ শেষে তাকে রিক্সায় তুলে দিয়ে ধর্ষকরা হুমকী প্রদান করে যে এ বিষয়ে কাউকে অবগত করা হলে তাকে হত্যা করা হবে।

এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন জানান, পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত তিনজনকে ইতিমধ্যেই গ্রেপ্তার করেছে এবং অপর আরেক আসামীকেও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালাচ্ছে।