বগুড়ায় বিএনপির কর্মী সমর্থকদের পাল্টাপাল্টি শোডাউন, ঝাড়ু মিছিল

বগুড়া প্রতিনিধি:

বগুড়ায় বিএনপি নেতা সিপার আল বখতিয়ারকে দল থেকে বহিষ্কার করার প্রতিবাদে কর্মী সমর্থকরা শনিবার সকালে শহরে ঝাড়ু মিছিল বের করে। এদিন দুপুরে শহরে জেলা বিএনপির আহবায়ক জিএম সিরাজ এমপির কর্মী সমর্থকরা হোন্ডা বহর বের করে। উভয় পক্ষের সংঘর্ষের আশংকায় শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে পর্যাপ্ত সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করে জেলা পুলিশ।

এদিন বগুড়া জেলা বিএনপির সাবেক প্রচার সম্পাদক ও জেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি সিপার আল বখতিয়ারকে বহিষ্কারের প্রতিবাদে সকাল ১১টার দিকে মালতীনগর বকশিবাজার মোড় থেকে মিছিল বের হয়। মিছিলটি শহরের প্রধান সড়কগুলো প্রদক্ষিন করে মালতিনগরে গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে মালতীনগর ১১নং ওয়ার্ডসহ বিভিন্ন এলাকার সহস্রাধিক নারী ও পুরুষ অংশগ্রহন করেন।

মিছিলটি শহরের পিটিআই মোড়ে এসে সংক্ষিপ্ত বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে। এতে জেলা যুবদলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আমিরুল ইসলাম, ফারুকুল ইসলাম ফারুক, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক মাসুদ রানা, রঞ্জন, জালাল, আলমগীরসহ আরও অনেকে বক্তৃতা করেন।

মিছিলে আসা নেতৃবৃন্দ জানান, সমাবেশ থেকে সিপারের উপর থেকে দলীয় নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে বিএনপিকে ৪৮ ঘণ্টার সময় বেঁধে দেওয়া হয়। এই সময়ের মধ্যে বহিষ্কার আদেশ তুলে না নিলে আন্দোলন অব্যাহত রাখার ঘোষণা দেওয়া হয় এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে।

এদিকে দুপুরে প্রায় ২ শতাধিক মোটর সাইকেল বহর নিয়ে জেলা বিএনপির আহবায়ক শহরে আসেন। বহর থেকে মিছিলে নেতৃত্ব দেন কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতা সাবেক এমপি হেলালুজ্জামান তালুকদার লালু, জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি রেজাউল করিম বাদশা, বিএনপি নেতা আলী আজগর তালুকদার হেনা, তাহা উদ্দিন নাহিন, সহিদ উন নবী সালাম, স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা মাজেদুর রহমান জুয়েল, সরকার মুকুল, জেলা যুবদল নেতা খাদেমুল ইসলাম খাদেম, জাহাঙ্গীর আলম, জেলা ছাত্রদল নেতা নূরে আলম সিদিক্কী রিগ্যান সহ দলীয় নেতা কর্মীরা।

ইয়াকুবিয়া মোড় হয়ে বগুড়া জজ কোটে গিয়ে শেষ হয়। জজ কোর্ট চত্বরে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির আহবায়ক জিএম সিরাজ এমপি। এসময় তিনি বলেন, কেন্দ্র থেকে দলীয় যে সিদ্ধান্ত আসবে আমরা তা পালন করব। যদি কেউ তা মানতে না চায় তবে তাকে রুখে দিতে হবে। দলীয় সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত। কারণ ব্যক্তির চেয়ে দল বড়। তা সবাইকে মানতে হবে।

সমাবেশ শেষে জিএম সিরাজ এমপি জজ কোর্টে গওহর আলী ভবরে অনুষ্ঠিত জাতীয়তাবাদী আইনজীবি ফোরামের নির্বাচন পরিদর্শন করেন।

বগুড়া সদর সার্কেলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী জানান, যে কোন ধরণের অনাকাঙ্খিত ঘটনা এড়াতে শহরে পর্যাপ্ত পরিমানে পুলিশ সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য গত মঙ্গলবার বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে সিপারকে বিএনপির প্রাথমিক সদস্যপদসহ সব পর্যায়ের পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়। এরপর থেকেই সিপারের পক্ষে বিভিন্নভাবে প্রতিবাদ হয়ে আসছে। সিপার জেলা যুবদলে দীর্ঘদিন ধরে নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন। শহর বিএনপিরও সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন তিনি। শহরের ১১নং ওয়ার্ডে তিনি পরপর ৪ বার কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব পালন করছেন।