বল হাতেই জবাব দিলেন তাসকিন

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) শুক্রবার তাসকিন আহমেদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে লণ্ডভণ্ড হয়ে যায় প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাবের ব্যাটিং লাইন আপ। আগুনে পারফরম্যান্সের দিনে তার দল লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ ৭ উইকেটে হারিয়েছে দোলেশ্বরকে। শুক্রবার বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (বিকেএসপি) ৩ নাম্বার মাঠে আগে ব্যাটিং করে ২০৬ সংগ্রহ পায় দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাব। জবাবে শাহরিয়ার নাফিসের অপরাজিত ১১৩ রানের ইনিংসের ওপর ভর করে ৩ উইকেট হারিয়ে, অনায়াসে সে লক্ষ্য পাড়ি দেয় লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ।

দলের জয়ের দিনে বল হাতে তাসকিন একাই পুড়িয়েছেন দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাবের ব্যাটসম্যানদের। কয়দিন আগেই বিশ্বকাপ দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) ২২ উইকেট নিয়ে নিজেকে প্রমাণ করার পরও বিশ্বকাপ দলে জায়গা হয়নি তাসকিনের। ইনজুরিতে থাকা তাসকিন মাঠে ফিরলেও, ফিটনেস নিয়ে কথা উঠেছে অনেক। তবে ফিটনেসের যে কোন ঘাটতি নেই, সেটার প্রমাণ মাঠে দিয়েছেন এই ডানহাতি পেসার। রূপগঞ্জের হয়ে ৯ ওভার বোলিং করে নিয়েছেন দোলেশ্বরের মূল্যবান ৪ উইকেট।

এই ম্যাচে টসে জিতে আগে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন দোলেশ্বরের অধিনায়ক মার্শাল আইয়ুব। সৈকত আলির ৯৫ বলে ৭২, সাইফ হাসানের ৬৪ বলে ৩৭, তাইবুর রহমানের ৩৮ বলে ২৭ ও মাহমুদুল হাসানের ২০ বলে ২৫ রানের ওপর ভর করে ৪৫ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে ২০৫ রান সংগ্রহ করে দোলেশ্বর।

লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের হয়ে তাসকিন আহমেদ ৯ ওভার বোলিং করে ৫৪ রান দিয়ে নিয়েছেন ৪ উইকেট। এছাড়া আরেক পেসার মোহাম্মদ শহিদ নিয়েছেন ৩ উইকেট।

২০৬ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শাহরিয়ার নাফিসের অপরাজিত ১৪২ বলে ১১৩, মেহেদি মারুফের ৬৭ বলে ৪১ ও নাঈম ইসলামের ২৭ বলে ৩২ রানের সুবাদে ৪৪ ওভার ২ বলে মাত্র ৩ উইকেট হারিয়ে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ।

দোলেশ্বরের হয়ে বল হাতে এনামুল হক জুনিয়র, মানিক খান ও সাইফ হাসান প্রত্যেকে নিয়েছেন একটি করে উইকেট। অপরাজিত ১১৩ রানের ইনিংস খেলে ম্যাচ সেরা হয়েছেন শাহরিয়ার নাফিস।

বিশ্বকাপ স্কোয়াডে না থেকে তাসকিন ভালো পারফর্ম করলেও, দলে সুযোগ পাওয়া পেসার আবু জায়েদ রাহী দোলেশ্বরের হয়ে ৩ ওভার বোলিং করে ১৬ রান দিয়ে ছিলেন উইকেটশূন্য।

দিনের অপর খেলায় আবাহনী লিমিটেডের হয়ে বল হাতে জ্বলে উঠেছেন মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন ও মাশরাফি বিন মুর্তজা। সাইফুদ্দিন শিকার করেন প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের ৫ উইকেট। মাশরাফি নিয়েছেন ২ উইকেট।

বিপিএলে ভালো পারফর্ম করেও তাসকিন আহমেদের বিশ্বকাপের দলে না থাকা ছিলো বিস্ময়কর। যদিও ইনজুরি থেকে ফেরার পর তার ফিটনেসের বিষয়টি ছিলো আলোচনায়। কিন্তু তাসকিন ঘরোয়া ক্রিকেটের ম্যাচ পারফর্ম করে  জানিয়ে দিলেন তিনি প্রস্তুত।