বশেমুরবিপ্রবির কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারে চুরি

ওহাব, বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি:

বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে লকডাউনের মধ্যেই গোপালগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রাবাসে চুরির ঘটনা ঘটেছিল। তবে এবার চুরির ঘটনা ঘটেছে খোদ বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বশেমুরবিপ্রবি) এর কেন্দ্রীয় একুশে ফেব্রুয়ারি লাইব্রেরী থেকে জানালা ভেঙ্গে ৯১ টি কম্পিউটার চুরি হয়েছে বলে বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার সুত্রে জানা যায়।

রবিবার (৯ আগস্ট) বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. নুরউদ্দিন আহমেদ চুরির ঘটনাটি অবগত করেন।

চুরির ঘটনা উল্লেখ করে রেজিস্ট্রার ড. মোঃ নূরউদ্দিন আহমেদ জানান, “ছুটি শেষে আজ বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম শুরু হওয়ার পর বিষয়টি সম্পর্কে কর্তৃপক্ষ অবগত হয়। এসময় দেখা যায় লাইব্রেরীর পিছনের দিকের জানালা ভেঙে কম্পিউটর গুলি চুরি হয়। লাইব্রেরি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে মোট ৯১ টি কম্পিউটার চুরি হয়েছে।” এসময় তিনি আরো জানান, চুরির ঘটনায় মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে।

চুরির এ ঘটনায় বশেমুরবিপ্রবির সহকারী নিরাপত্তা কর্মকর্তা তরিকুল ইসলাম বলেন, “আমরা চুরির বিষয়ে জানার পর বিশ্ববিদ্যালয়ের সিসিটিভি ফুটেজ চেক করেছি। সিসিটিভিতে ২৭ জুলাই থেকে আজ পর্যন্ত ঘটা,ঘটনার ভিডিও ফুটেজ রয়েছে। এসময়ে কোনো চুরির ঘটনা ঘটেনি। আর এর আগে ২০ তারিখ উপাচার্য (রুটিন দায়িত্ব) মহোদয় লাইব্রেরি পরিদর্শন করেছিলেন। তখনও সকল কম্পিউটার যথাস্থানে ছিলো। তাই আমরা ধারণা করছি ২০ থেকে ২৭ তারিখের মধ্যবর্তী সময়ে এই চুরির ঘটনা ঘটেছে।”

এসময় তিনি আরো বলেন, “বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩০ জন গার্ডের মধ্যে ২০ জন ২৩ তারিখ থেকে কোনো নির্দিষ্ট কারণ না জানিয়েই অনুপস্থিত ছিলেন তাই নিরাপত্তাজনিত কিছুটা সমস্যা ছিলো। তবে আমরা চেষ্টা করেছি অবশিষ্ট গার্ড ও আনসারদের সমন্বয়ে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে।”