বার্সেলোনা ছাড়তে চান মেসি

দুরন্ত ডেস্ক:

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে লিওনেল মেসির বার্সেলোনা ছাড়ার গুঞ্জন। কর্তৃপক্ষের সঙ্গে নাকি বনিবনা হচ্ছে না তার। তবে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে চ্যাম্পিয়নস লিগ কোয়ার্টার ফাইনালে ৮-২ গোলে বার্সার হারের পর আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের ন্যু ক্যাম্পে থাকা না থাকা নিয়ে নানা খবর আসতে থাকে।

অবশেষে মঙ্গলবার সর্বশেষ খবর কাঁপিয়ে দিলো বার্সা ও মেসি ভক্তদের। স্প্যানিশ জায়ান্টদের সঙ্গে ‘একতরফাভাবে’ চুক্তি বাতিল করতে চান বলে বার্সেলোনাকে জানিয়ে দিয়েছেন মেসি। স্পেনের শীর্ষ সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে এএফপি।

মেসির আইনজীবীরা বার্সেলোনার কাছে একটি ফ্যাক্স পাঠিয়েছে, যেখানে বলা হয়েছে আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড আর থাকবেন না। আগামী বছরের জুন পর্যন্ত বর্তমান চুক্তির মেয়াদ থাকলেও রিলিজ ক্লজের ঝামেলা মিটিয়ে আগেই চুক্তি বাতিল করতে চান।

স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক মার্কা লিখেছে, ‘আসলে এই রিলিজ ক্লজের মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিল ১০ জন। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে এই মৌসুমের অস্বাভাবিক পরিস্থিতি মেসিকে তার চুক্তি বাতিলের একটি পথ খুলে দিয়েছে। তার চলে যাওয়ার আলোচনা শুরু করতে এটা প্রথম ধাপ।’

মেসির না থাকার খবর আরও বিশ্বাসযোগ্য হয়ে উঠেছে তার সাবেক সতীর্থ কার্লোস পুয়োলের টুইটে, ‘লিও, তোমার প্রতি শ্রদ্ধা ও সম্মান। সব সময়ই সমর্থন থাকবে বন্ধু।’ পুয়োলের টুইটের রিপ্লাইয়ে আবার লুই সুয়ারেজ হাততালির ইমোজি দিয়েছেন। একটি রেডিও স্টেশন লিখেছে, ‘বার্সেলোনায় লিওনেল মেসির গৌরবোজ্জ্বল অধ্যায়ের শেষ অনেকটাই নিকটে। রোনাল্ড কোম্যান আসার পর তার বন্ধু লুই সুয়ারেজের সম্ভাব্য বিদায়ের খবর এবং কঠিন ও হতাশার মৌসুম শেষ হওয়ায় মেসি একটি ফ্যাক্স পাঠিয়ে বার্সেলোনা ছাড়ার ইচ্ছা জানিয়ে দিয়েছেন।’

২০০০ সালে মাত্র ১৩ বছর বয়সে বার্সেলোনার সঙ্গে চুক্তি হয় মেসির। এরপর থেকে ক্লাবটির অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে ছিলেন তিনি। তাদের আলাদা হওয়ার ভাবনা কল্পনাও করা যায়নি এতদিন। এবার হয়তো তা সত্যিই হতে যাচ্ছে।