বিজিবি এক মাসে ৬৫ কোটি টাকার চোরাচালান পণ্য জব্দ করেছে

নিজস্ব প্রতিবেদক:

গত অক্টোবর মাসে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) অভিযানে ৬৪ কোটি ৯৫ লক্ষাধিক টাকার চোরাচালান ও মাদকদ্রব্য জব্দ করা হয়েছে। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদর দপ্তর থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সূত্র জানায়, গত অক্টোবর মাসে দেশের সীমান্ত এলাকাসহ অন্যান্য স্থানে অভিযান চালিয়ে ৬৪ কোটি ৯৫ লাখ ১৮ হাজার টাকা মূল্যের বিভিন্ন ধরনের চোরাচালান ও মাদকদ্রব্য জব্দ করেছে।

জব্দ মাদকের মধ্যে রয়েছে ৯ লাখ ৩ হাজার ২৮৯ পিস ইয়াবা, ৫৪ হাজার ৫৮৮ বোতল ফেনসিডিল, ১৪ হাজার ৩৮৬ বোতল বিদেশি মদ, ৩৮৫ ক্যান বিয়ার, ১ হাজার ৪৮৭ কেজি গাঁজা, ৪৩০ গ্রাম হেরোইন, ১২ হাজার ৮৩৭টি উত্তেজক ইনজেকশন, ৪ হাজার ৮৮৮টি অ্যানেগ্রা/সেনেগ্রা ট্যাবলেট এবং ১ লাখ ৪৪ হাজার ৯৮০টি অন্যান্য ট্যাবলেট।

জব্দ অন্যান্য চোরাচালান দ্রব্যের মধ্যে রয়েছে ১৬ কেজি ৫৮২ গ্রাম স্বর্ণ, ১৫ কেজি ৪৬৫ গ্রাম রুপা, ১টি কষ্টি পাথরের মূর্তি, ১ হাজার ৯০৫টি ইমিটেশনের গহনা, ৪৫ হাজার ৭৭৭টি কসমেটিকস সামগ্রী, ৩ হাজার ৪৬৯টি শাড়ি, ৩৭৯টি থ্রিপিস/শার্টপিস, ৩ হাজার ৪৯ পিস তৈরি পোশাক, ৫ হাজার ১৫৫ ঘনফুট কাঠ, ৪ হাজার ২৮৬ কেজি চা পাতা, ১৬ হাজার ৯০০ কেজি কয়লা, পাঁচটি ট্রাক, ছয়টি প্রাইভেট কার, পাঁচটি পিকআপ, ৩১টি সিএনজি/ইঞ্জিন চালিত অটোরিকশা এবং ৯২টি মোটরসাইকেল। উদ্ধারকৃত অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে ৬টি পিস্তল, ৮টি একনলা বন্দুক, ১টি ম্যাগাজিন এবং ৪০ রাউন্ড গুলি।

এ ছাড়া সীমান্তে বিজিবির অভিযানে ইয়াবাসহ বিভিন্ন ধরনের মাদকপাচার ও অন্যান্য চোরাচালানে জড়িত অভিযোগে ৩৬৩ জন চোরাকারবারিকে এবং অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের দায়ে ২৫০ বাংলাদেশি ও সাতজন ভারতীয় নাগরিককে আটকের পর তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলে সূত্র জানায়।

দুরন্ত/১নভেম্বর/আইডি