বিভাগীয় শহরে ঢাবির ভর্তি পরীক্ষা ১০০ নম্বরের প্রশ্ন থাকবে

নিজস্ব প্রতিবেদক

অনলাইনে নয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সরাসরি অনার্স প্রথম বর্ষে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। শিক্ষার্থীদের রেজাল্টের পর ভর্তির তারিখ জানানো হবে। তবে ডিসেম্বরের দিকে পরীক্ষা হতে পারে বলে আভাস পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনস কমিটির মিটিংয়ের পর এ সিদ্ধান্ত জানানো হয়েছে। ডিনস কমিটির ওই সিদ্ধান্ত একাডেমিক কাউন্সিলে যাবে।

জানা গেছে, করোনার কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের কথা বিবেচনায় নিয়ে ভর্তি পরীক্ষা শিক্ষার্থীদের নিজস্ব বিভাগীয় শহরে নেওয়ার কথা ভাবা হচ্ছে। অর্থাৎ যে শিক্ষার্থী যে বিভাগের, তারা সেই বিভাগে পরীক্ষা দেবে। এর ফলে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীকে ঢাকায় আসতে হবে না।

এ বিষয়ে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক সাদেকা হালিম বলেন, আমরা ভর্তি পরীক্ষা নেব। আমাদের সকল অনুষদের ডিন এ বিষয়ে মতামত দিয়েছেন। প্যানডেমিক সিচুয়েশন বিবেচনা করে রেজাল্টের পর ডিসেম্বরে আমরা ভর্তি পরীক্ষা নেব।

অনলাইনে পরীক্ষা নেয়ার বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ বিষয়ে কোনদিনই মতামত দেওয়া হয়নি। আমরা অনলাইনে নেব না, সরাসরি পরীক্ষা নেব। তিনি আরো বলেন, আমরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কোয়ালিটি মেইনটেইন করতে চাই। পরবর্তীতে ধীরে ধীরে এ বিষয়ে আরো আলোচনা হবে। আমরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে হয়তবা বিভাগভিত্তিক হিসেবে পরীক্ষা নিয়ে নেব, যাতে শিক্ষার্থীদের ঢাকায় না আসতে হয়। এতে করোনা ছড়ানোর ভয় থাকবে না।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) ড. এএসএম মাকসুদ কামাল বলেন, ‘অন্যান্য বছরের মতো এবারও সরাসরি ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার পক্ষে আমাদের ডিনস কমিটির বৈঠকে সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়েছে। তবে এবছর ১০০ নম্বরের পরীক্ষা হবে।

তিনি বলেন, এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার রেজাল্টের ওপর ২০ শতাংশ নম্বর থাকবে। বাকি ৮০ নম্বরের পরীক্ষা হবে। এর মধ্যে ৩০ নম্বর এমসিকিউ ও ৫০ নম্বরের পরীক্ষা লিখিত। পরীক্ষা আসলে কোনো বিভাগে হবে না। বিভাগ ওয়াইজ সেন্ট্রালাইজড করা হবে। শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি কমানোর জন্য এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।’

দুরন্ত/২০অক্টোবর/আইডি