বৃষ্টিতে ঢাকা দক্ষিণ সিটির বর্জ্য পরিষ্কার কাজ ব্যাহত, উত্তরে স্বস্তি

বিশেষ প্রতিবেদক:

ঈদের দিন সকালে টানা এক ঘণ্টার ভারী বৃষ্টিতে রক্ত, দূষিত পদার্থ ধুয়ে পথঘাট পরিষ্কার হলেও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে ব্যাহত হয় বর্জ্য ব্যবস্থাপনা। অন্যদিকে বৃষ্টি না হওয়ায় কিছুটা স্বস্তিতে উত্তর সিটি।

ঈদের সকালে সবাই যখন পশু কোরবানির নানা আনুষ্ঠানিকতা সারছেন তখন এক মা ব্যস্ত নগর পরিস্কারের কাজে। ঘরে রেখে এসেছেন শিশু সন্তানকে। তার মতোই করোনাকালে দুই সিটিকে পরিচ্ছন্ন করছেন সাড়ে ১৭ হাজার কর্মী।

সিটি কর্পোরেশনের এক পরিচ্ছন্নতা কর্মী বলেন, আমরা বিভিন্ন কাজ করছি। তারপর কুরবানির গরুর ময়লা আবর্জনা পরিষ্কার করছি। বাধ সাধে তুমুল বৃষ্টি। প্রায় ১ ঘণ্টার বর্ষণে থামাতে হয় কাজ।

তবে এর আগে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন বর্জ্য অপসারণে বিশেষ কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। ইনশাল্লাহ ২৪ ঘন্টায় কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারিত হবে। শনিবার সকালে বায়তুল মোকাররমে ঈদের প্রথম জামাতে অংশগ্রহণ শেষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এই আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

ডিএসসিসি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস এ সময় বলেন, আজ আমরা অত্যন্ত আনন্দের সাথে ঈদ-উল-আযহা উদযাপন করব, কোরবানি দেবো। কোরবানির পর পশুর যে বর্জ্য সৃষ্টি হবে, আমরা সে বর্জ্য দুপুর ২টা থেকে সম্পূর্ণরূপে অপসারণের কার্যক্রম হাতে নিয়েছি। ইনশাআল্লাহ গতবারের ন্যায় এবারও আমরা ঢাকাকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করতে পারব।

পরিচ্ছন্নতাকর্মী থেকে শুরু করে কর্মকর্তা-কর্মচারী কেউ ছুটিতে নেই জানিয়ে এ সময় ডিএসসিসি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস ২৪ ঘন্টার মধ্যে বর্জ্য অপসারিত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

ডিএসসিসি মেয়র আরও বলেন, অত্যন্ত সুন্দর, সুশৃংখলভাবে হাট পরিচালিত হয়েছে। হাট পরিচালনার পর আমরা রাত ১২.০১টা থেকে কোরবানির পশুর হাট-কেন্দ্রিক বর্জ্য অপসারণ শুরু করেছি। ইতোমধ্যে পশুর হাটের প্রায় শতভাগ বর্জ্য অপসারণ করতে আমরা সক্ষম হয়েছি।

উল্লেখ্য, নামাজ শেষে বায়তুল মোকাররমের খতিব জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ ১৫ আগস্ট কাল রাত্রিতে শাহাদাত বরণকারী সকল শহীদের রুহের মাগফেরাত কামনা, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সুস্বাস্থ্য-দীর্ঘায়ু এবং দেশবাসীর সার্বিক কল্যাণ কামনা করে বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করেন।

অন্যান্যের মধ্যে ধর্ম সচিব মোঃ নূরুল ইসলাম, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নিবার্হী কর্মকর্তা শাহ্ মোঃ ইমদাদুল হক, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক আনিস মাহমুদ, ডিএসসিসি সচিব আকরামুজ্জামান প্রমুখ ডিএসসিসি মেয়রের সাথে ঈদের প্রথম জামাতে নামাজ আদায় করেন।

এই বিষয়ে স্থানীয়রা বলেন, আমাদের কাজ শেষ হলে আমরা সব পরিষ্কার করে ব্লিচিং ছিটিয়ে দেয়। সিটি কর্পোরেশনের জন্য আমরা ওয়েট করি না।

পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের তাড়া ছিল জলাবদ্ধতা তৈরির আগেই বর্জ্য সরিয়ে নেবার।

এক পরিচ্ছন্নতা কর্মী বলেন, আমরা কোনো আসুখ বিসুখরে ডরাই না। আমরা বর্জ্য পরিষ্কার কইরা দিমু এইটাই আমাগো কাজ। জলজটে বর্জ্য নিয়ে শঙ্কার কথা জানান নগরবাসী।

এক নগরবাসী জানান, আমাদের ড্রেনের সিস্টেমে অনেক প্রবলেম রয়েছে। এটা যদি ক্লিয়ার করা হয়, তাহলে মনে হয় আরেকটু ভালো হয়।

করোনার কারণে এবার পশু কোরবানি হয়েছে ৪০ শতাংশ কম। তারপরও বিশাল কর্মীবাহিনীসহ সাড়ে ৭শ’ যানবাহন ব্যবহার করে, যত দ্রুত সম্ভব বর্জ্য অপসারণের আশ্বাস দিলেন দুই মেয়র।

দুরন্ত/১আগষ্ট/পিডি/এসএম