ভোট চুরি করে আবারো ক্ষমতায় আসতে পারেন ট্রাম্প

দুরন্ত ডেস্ক:

হিলারি ক্লিনটন অভিযোগ করে বলেছেন, সতর্কতা অবলম্বন না করলে ডোনাল্ড ট্রাম্প ভোট চুরি করে আবারো আমেরিকার ক্ষমতায় ফিরতে পারেন। এ প্রসঙ্গে ভোটারদের ২০১৬ সালের নির্বাচনের কথাও মনে করিয়ে দেন তিনি।

তিনি বলেন, জো বাইডেন ও কমলা হ্যারিস ৩০ লাখ বেশি ভোট পেলেও হেরে যেতে পারেন।’ সূত্র : গার্ডিয়ান।

সোমবার থেকে ডেমোক্রেটিক দলের জাতীয় কনভেনশন শুরু হয়েছে। বুধবার নিউইয়র্কের বাড়ি থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দলের প্রেসিডেন্ট প্রার্থী জো বাইডেনের সমর্থনে বক্তব্য রাখেন হিলারি ক্লিন্টন।

সাবেক এই প্রেসিডেন্ট প্রার্থী বলেন, ‘আমি ভেবেছিলাম ডোনাল্ড ট্রাম্প একজন ভাল প্রেসিডেন্ট হবেন। কিন্তু, দুঃখের বিষয় হল তিনি পদে বসার আগে যা ছিলেন পরেও তাই রয়ে গেলেন। গত চার বছর ধরে মানুষ আমাকে বলেছেন যে উনি কতটা ভয়ানক তা আমি বুঝতে পারিনি। যুক্তরাষ্ট্রের এমন একজন রাষ্ট্রপতি দরকার যাঁর ধৈর্য্য থাকবে। নির্দিষ্ট লক্ষ্য অনুসরণ করে যিনি দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবেন। আমার মনে হয় জো বাইডেনের মধ্যে সেই যোগ্যতা রয়েছে।’

এরপরই ২০১৬ সালের নির্বাচনের প্রসঙ্গ উত্থাপন করে ওই বছরের ডেমোক্র্যাট প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন। ট্রাম্পের চেয়ে ২৯ লাখের বেশি পুপলার ভোট পেলেও ইলেক্টোরাল কলেজ ডেলিগেটদের ভোটের জন্য হার স্বীকার করতে হয়েছিল তাঁকে।

সেই কথা উল্লেখ করেন সাবেক মার্কিন রাষ্ট্রপতি বিল ক্লিন্টনের স্ত্রী বলেন, ‘জো বাইডেন ও কমলা হ্যারিস ৩০ লাখ বেশি ভোট পেলেও হেরে যেতে পারেন। কারণ যে কোনো মূল্যে এই নির্বাচন জিততে চাইবেন ট্রাম্প। দরকার পড়লে এর জন্য তিনি ভোট চুরি করতেও পিছপা হবেন না। তাই সবাইকে অনুরোধ করব ঐক্যবদ্ধ হয়ে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ভোট দিন।’

দুরন্ত/২১আগস্ট/পিডি