মসজিদে বিস্ফোরণ: মৃত্যুর মিছিলের সংখ্যা বেড়ে ২৬, আহতদের অবস্থাও সংকটাপন্ন

মোহাম্মদ ইমন, নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি:

নারায়ণগঞ্জ জেলার সদর উপজেলাধীন ফতুল্লার পশ্চিম তল্লা এলাকায় বায়তুস সালাত জামে মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় নতুন করে মনির ফরাজী (৩০) নামে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ২৬ জনের। রবিবার (৬ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে দিকে ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

কর্তব্যরত চিকিৎসকরা সাংবাদিকদের জানান, মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় এখানে যারা ভর্তি আছেন, তাদের সবার অবস্থাই সংকটাপন্ন। ভর্তি ১২ জনের মধ্যে ছয়জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ)।

ফতুল্লার পশ্চিম তল্লা এলাকায় মসজিদে ভিতরে বিস্ফোরণের ঘটনায় এর আগে সাংবাদিক, মসজিদের ইমাম, মুয়াজ্জিন এবং শিশুসহ ২৫ জন মারা যান। তারা হলেন- সাংবাদিক নাদিম (৪৫), মসজিদের ইমাম আব্দুল মালেক (৬০), ইব্রাহিম (৪২), দেলোয়ার হোসেন (৪২), মোস্তফা কামাল (৩৫), সাব্বির (২১), জুয়েল (৭) জুবায়ের (১৮), হুমায়ূন কবির (৭০), জুনায়েদ (১৭), রিফাত (১৮), কুদ্দুস ব্যাপারী (৭০), জামাল (৪০), রাশেদ (৩০), মাইনুদ্দিন (১২), জয়নাল (৪০), নয়ন (২৭), কাঞ্চন (৫০), রাসেল (৩৪), বাহাউদ্দিন (৫৫), মিজান (৩৪), শামীম হাসান (৪৫) , জুলহাস (৩৫), আবুল বাসার মোল্লা (৫১) ও মোহাম্মদ আলী (৫৫)।

উল্লেখ্য যে, গত শুক্রবার (৪সেপ্টেম্বর) রাত পৌনে ৯টার দিকে নারায়ণগঞ্জ শহরের ফতুল্লার পশ্চিম তল্লা এলাকায় বায়তুল সালাহ জামে মসজিদে এশার নামাজের পরে মোনাজাতের সময় বিস্ফোরণের ঘটনায় আগুন লেগে অর্ধশতাধিক মুসল্লি দগ্ধ হন। এদের মধ্যে ৪০জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক ছিল এবং ৩৭জনকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়।

এছাড়াও এ ঘটনায় আহত বাকিদের নারায়নগঞ্জের স্থানীয় ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতাল ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনায় একটি মামলাও দায়ের করা হয়েছে।