মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়নি!

সুমন মিয়া, তাড়াইল (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি :

সর্বকালের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫ তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করার সরকারি নির্দেশ রয়েছে। কিন্তু কিশোরগঞ্জের তাড়াইলে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে জাতীয় ও কালো পতাকা উত্তোলন না করেই বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে উপজেলা প্রশাসন।

জানা গেছে, আজ ১৫ আগষ্ট শনিবার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫ তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালনের লক্ষ্যে উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক কর্মসূচীর মধ্যে ছিল তাড়াইল মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স প্রাঙ্গণে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে সকাল ১০ টায় পুষ্পমাল্য অর্পণ।

পুষ্পমাল্য অর্পণ করতে সেখানে উপস্থিত হন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো.জহিরুল ইসলাম শাহীন, নির্বাহী অফিসার মো.তারেক মাহমুদ, সহকারি কমিশনার ভূমি মো. আবু রিয়াদ,তাড়াইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো.মুজিবুর রহমান,উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো.গিয়াস উদ্দিন লাকী,উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার হাজী আব্দুল হাই,তাড়াইল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো.আব্দুর রহমান, তাড়াইল প্রেসক্লাব সভাপতি দেওয়ান ফারুক দাদ খান, স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধাসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা – কর্মচারী ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ছাড়াও স্থানীয় গণমাধ্যমের কর্মীরা।

একে একে সবাই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে তাঁর প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়।

হঠাৎ স্থানীয় গণমাধ্যমের কর্মীদের চোখে পড়ে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে পতাকা উত্তোলনের জায়গাটা ফাঁকা উত্তোলন করা হয়নি জাতীয় ও কালো পতাকা।

এ ব্যাপারে তাৎক্ষণিক নির্বাহী অফিসারকে প্রশ্ন করলে তখন উপস্থিত সকলের মাঝে ক্ষোভ ও তীব্র নিন্দা বিরাজ করে। সাথে সাথে নির্বাহী অফিসার মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার হাজী আব্দুল হাইকে নির্দেশ প্রদান করেন জাতীয় পতাকা অর্ধনিমিত ও কালো পতাকা উত্তোলন করার জন্য।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো.তারেক মাহমুদ দুরন্ত নিউজকে বলেন, আজ জাতির জনকের ৪৫ তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী জাতীয় পতাকা অর্ধনিমিত ও কালো পতাকা উত্তোলন করার কথা থাকলেও কেন তা করা হয়নি। আমি তা খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নিচ্ছি, তবে বিষয়টা অত্যন্ত দু:খজনক।