ময়মনসিংহে রেললাইনে পাথরের বদলে নিম্নমানের ইট

মোহাম্মদ জাকারিয়া, ময়মনসিংহ প্রতিনিধি:

ময়মনসিংহে রেললাইন সংষ্কার ও মেরামত কাজে পাথরের বদলে নিম্ন মানের ইটের খোয়ার সাথে ব্যবহার করা হচ্ছে সাদা বালি! ময়মনসিংহ রেলস্টেশন থেকে কেওয়াটখালি লোকোসেড পর্যন্ত দুই কিলোমিটারের বেশি রেললাইন মেরামত কাজে এই অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন স্থানীয় এলাকাবাসী।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে রেলওয়ের স্থানীয় সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী নাজমুল হাসান জানান, এই কাজ সাময়িক। বর্ষায় জলাবদ্ধতা থেকে রেললাইন রক্ষায় এই কাজ করা হচ্ছে। চাহিদার বরাদ্দ পেলে পাথর ব্যবহার করেই এই সংস্কার ও মেরামত কাজ করা হবে। এই কাজে সরকারের কত টাকা বরাদ্দ রয়েছে তা জানাতে অস্বীকৃতি জানায় এই নির্বাহী প্রকৌশলী।

তবে নাম প্রকাশ করা হবে না শর্তে একটি সূত্র জানায়, এই কাজে প্রায় ২০ লাখ টাকা বরাদ্দ রয়েছে। সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্রের দাবি, এটি সরকারী অর্থের অপচয় ছাড়া আর কিছুই নয়। ইতোমধ্যে রেললাইন মেরামত কাজে ইটের খোয়া ব্যহারের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

স্থানীয় সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ময়মনসিংহ রেলওয়ে স্টেশন ইয়ার্ড থেকে কেওয়াটখালি লোকোসেড পর্যন্ত দুই দশমিক এক কিলোমিটার রেললাইন সংস্কার ও মেরামত কাজের টেন্ডার আহবান করে এর কার্যাদেশ দেয়া হয় গত জুন মাসে। মেসার্স প্রমা কনষ্ট্রাকশন নামে একটি প্রতিষ্ঠান এই কার্যাদেশ পায়। চলতি আগষ্টে এই কাজ শুরু করা হয়। আগামী সেপ্টেম্বর মাসে এই মেরামত কাজ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।

অভিযোগ রয়েছে, প্রমা কনস্ট্রাকশন কার্যাদেশ পেলেও মূলত এই কাজ করছেন রেলওয়ের পূর্ত বিভাগের স্থানীয় এক কর্মকর্তা। ময়মনসিংহ রেলওয়ে স্টেশন থেকে লোকোসেড পর্যন্ত এই রেললাইন দিয়ে কেবল ইঞ্জিন ও উদ্ধারকারী রিলিফ ট্রেন যাতায়াত করে থাকে। বর্ষায় পানি জমে রেললাইনের স্লিপার ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। পানি জমে রেললাইনে সৃষ্টি হচ্ছে জলাবদ্ধতা।

এছাড়া এসময় ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করে থাকে ইঞ্জিন ও রিলিফ ট্রেন। সাময়িকভাবে এই সমস্যা সমাধান করতেই এই উদ্যোগ জানান সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী। কাজের শুরুতে রেললাইনের পাশে ইটের খোয়া ও সাদা বালি স্তুুপ দিয়ে রাখা হলে স্থানীয় এলাকাবাসী প্রতিবাদ জানায়। কিন্তু এসব প্রতিবাদ ও আপত্তি উপেক্ষা করে ঠিকাদারের নিযুক্ত লোকজন রেললাইনের ওপর ইটের খোয়া ও সাদা বালি ফেলে কাজ চালিয়ে যেতে থাকে।

প্রভাবশালী ঠিকাদারের হয়রানির ভয়ে স্থানীয়রা বাধা দিতে সাহস পায়নি। তবে এসময় ইটের খোয়া ফেলে রেললাইন মেরামত কাজের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ভাইরাল হলে এ নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়। সরেজমিন দেখা গেছে কেওয়াটখালি লোকোসেড থেকে বলাশপুর ও কৃষ্টপুর হয়ে ময়মনসিংহ রেলস্টেশন বরাবর মেরামত ও সংস্কার কাজ চলছে।

তবে এসময় রেলওয়ের স্থানীয় সংশ্লিষ্ট কাউকে তদারকিতে দেখা যায়নি। বলাশপুরের স্থানীয় কোরবান আলী (৪০) ও দুলদুল ক্যাম্পের রেজিয়া (৫০) বিস্ময় প্রকাশ করে জানান, রেললাইনের কাজে পাথরের বদলে ইটের খোয়া ব্যবহারের এমন কাজ এর আগে কোথাও দেখেননি। চা দোকানি উজ্বল (৩৫) জানান, এতে দুর্ঘটনার আশঙ্কা বাড়বে।