রঙ্গিন নকশী কাঁথাতে নারী উদ্যোক্তা মালিয়া হোসেনের সাক্ষাতকার

শফিকুল ইসলাম সোহেল, শরীতপুর প্রতিনিধি:

বাংলাদেশের একজন সফল নারী উদ্যোক্তা আমরা রমনীর কো-ফাউন্ডার মালিয়া হোসেন। তিনি নকশি কাঁথাতে অসামান্য অবদান রেখেছেন। এই নকশী কাঁথা কিন্তু আদিকাল থেকে আজ অবধি পর্যন্ত রয়েছে। আমাদের প্রতিনিধির সঙ্গে তার কথা হয়।

মালিয়া হোসেন বলেন, নকশি কাঁথা আমাদের দেশীয় ঐতিহ্য, আমাদের অহংকার। এদেশের কারুশিল্পীদের নিপুন হাতের অনবদ্য সৃষ্টি। সেই আদিকাল থেকে আজ অবধি নকশি কাঁথার আবদার একটুও কমেনি বরং সময়ের বিবর্তনে নকশি কাঁথার চাহিদা আরও বেড়েছে এর ফলে দরিদ্র মহিলাদের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে।

তিনি বলেন, কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও অর্থনৈতিক অগ্রগতির লক্ষ্যে আমাদের সুযোগটি কাজে লাগানো দরকার।তাই আপনিও নকশি কাঁথার সাপ্লায়ারের ব্যবসা করতে পারেন।স্বল্প পুঁজিতে বাড়িতে বসেই আপনি আপনার ব্যবসা করতে পারবেন।

আমাদের নারী কারিগররা কাঁথা সেলাই করে পণ্য তৈরি করেন, যা পরে ক্ষেত্রের বিক্রয় এজেন্টরা সংগ্রহ করবেন। এই পণ্যগুলি আমাদের মহিলা উদ্যোক্তারা দেশি ভালবাসার জন্য গুণমান ও নিখুঁত উৎপাদন করে ক্রয় বিক্রয় মাধ্যমে করোনার কালিন সময়ে আমাদের কুটির শিল্পে মহিলাদের সুরক্ষিত ভাবে সরবরাহ করতে সহায়তা করেছে। এই সরবরাহ শৃঙ্খলার অংশ হওয়ার জন্য এবং আমাদের দ্বারপ্রান্তে আমাদের সেরা পণ্যগুলি আনতে সহায়তা করার জন্য আমাদের সমস্ত পৃষ্ঠপোষককে ধন্যবাদ জানাই।

আমি আশা করি দেশি ভালবাসা এই প্লাটফর্মের মাধ্যমে গ্রামীণ অর্থনীতিতে অবদান বাড়বে নারী উদ্যোক্তাদের। শহরের পাশাপাশি এখন গ্রামেও বাড়ছে নারী উদ্যোক্তা।সমাজে নারী আত্মকর্মসংস্থানের পথ দেখাবে এই প্লাটফর্ম।নারীরা এতে যেমন তাদের আত্মকর্মসংস্থান সৃস্টির সুযোগ পাবে তেমনি স্বনির্ভরশিল হয়ে উঠবে নারী সমাজ এবং বৃদ্ধি পাবে গ্রামীণ অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি।

আমরা রমনী প্লাটফর্মের মাধ্যমে মহিলাদের প্রতি সহিংসতার বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়া হয়েছে এবং তারা মানুষের মধ্যে সচেতনতা বাড়াতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

মালিয়া হোসেন আরো বলেন, আমি যে কোনও আন্তর্জাতিক বা রাজনৈতিক প্ল্যাটফর্মে আমাদের প্রতিনিধিত্ব করতে পছন্দ করি। সিল্ক শাড়ি এবং শাল যে কোনও অনুষ্ঠানের জন্য নিখুঁত।আমি ধর্মের শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানকেও বিশ্বাস করি এবং সর্বদা আমার ছেলেদের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং পূজা মন্ডপে নিয়ে যাই।

তিনি বলেন, আমি সেখান থেকে অনুপ্রাণিত হয়েছি, যেখানে তিনি একটি দেশি ভালোবাসা কাস্টমার হিসেবে ব্লাউজটি বেছে নিয়েছি ম্যাসলিন ব্লক প্রিন্ট শাড়ির সাথে আমি আশা করি সবাই আগ্রহ হবেন এবং নকশীকাঁথা, বেড কভার, থ্রীপিছ, ওয়ালমেট, কুশন কভার, শাড়ী, পাঞ্জাবী, টি শার্ট, ফতুয়া, স্কার্ট, লেডিজ পাঞ্জাবী, ইয়ক, পার্স, বালিশের কভার, টিভি কভার, শাড়ীর পাইর, ওড়না, এর ব্যাপক উৎপাদন, বিপণন, রপ্তানি করণ হতে পারে দেশের অর্থনীতির অন্যতম ভূমিকা রাখবে।

আমরা রমনীর কো-ফাউন্ডার মালিয়া হোসেনের স্বামী নাহিম রাজ্জাক একজন নামকরা রাজনৈতিক পরিবার এর এবং তিনি একজন সংসদ সদস্য। তিনি স্বামীর সাথে সব বিষয়ে সাহায্য করে থাকেন। তাছাড়াও রাজনৈতিক সকল বিষয়ে সহায়তা করে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছেন।