রাজধানীতে তাবলীগপন্থী যোবায়ের গ্রুপের সড়ক অবরোধ

নিজস্ব প্রতিবেদক:

রাজধানীর ভাটারা থানার প্রগতি স্মরণী এলাকায় তাবলীগপন্থী যোবায়ের গ্রুপের সদস্যের সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন। এ কারণে সড়কে প্রায় এক ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ ছিল।

এ সময়ে প্রগতি স্মরণী সড়কে দুইপাশে আটকে থাকা গাড়ির লোকজন চরম ভোগান্তিতে পড়েন। ভাটারা থানাধীন ছোলমাইদ ঠেক ঢালিবাড়ি এলাকায় মঈনুর মসজিদ ও মাদ্রাসা নিয়ে তাবলীগপন্থী চাঁদ গ্রুপ ও যোবায়ের গ্রুপের লোকজনের মাঝে বিরোধ চলে আসছে।

দুইপক্ষের মাঝে মাসতিনেক আগে মারামারি হলে নিরাপত্তার স্বার্থে মাদ্রাসা ও মসজিদ সাময়িক বন্ধ রাখা হয়। এ অবস্থায় শুক্রবার জুম্মার নামাজের পর যোবায়ের গ্রুপের লোকজন প্রগতি স্মরণীর বড়বাড়ি এলাকায় সড়কে অবস্থান নেয়।

তাদের অবরোধের কারণে সড়কে দুইপাশে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। তারা মসজিদ খুলে দেয়া এবং ভাটারা থানার ওসির প্রত্যাহারের দাবি জানান।

এদিকে খবর পেয়ে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ঘটনাস্থলে এসে তাদেরকে বুঝিয়ে সড়ক থেকে সরিয়ে নেয়ার চেষ্টা চালায়।

ভাটারা থানার ওসি মোক্তারুজ্জামান বলেন, দুপুর আড়াইটার দিকে তারা সড়কে অবস্থান নেন। তাদেরকে বুঝিয়ে সড়ক থেকে সরিয়ে দেয়ার পর বিকাল সাড়ে তিনটায় যান চলাচল শুরু হয়। প্রায় ঘণ্টাখানেক যান চলাচল বন্ধ ছিল।

এদিকে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ১৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাকির হোসেন বাবুল বলেন, মসজিদ ও মাদ্রাসা নিয়ে দুই গ্রুপের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। মাসতিনেক আগে দুই গ্রুপ মারামারি করলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশে নিরাপত্তার স্বার্থে মাদ্রাসা ও মসজিদ সাময়িক বন্ধ রাখা হয়। এ নিয়ে একাধিকবার আমরা সালিশে মীমাংসার চেষ্টাও করেছি।

শুক্রবার জুম্মার পর হঠাৎ করে যোবায়েরপন্থীরা সড়কে অবস্থান নেন। এ অবস্থায় মেয়র ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করে তাদেরকে মসজিদ খুলে দিয়েছি। তবে নামাজ পড়ার পর কেউ মসজিদে অবস্থান করতে পারবে না। আগামী বৃহস্পতিবার সালিশের দিন ধার্য করা হয়েছে।

দুরন্ত/১০অক্টোবর/আইডি/এসএম