রাবির বন্ধ হলে চুরির অভিযোগ!

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:

করোনাভাইরাসের প্রকোপে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের ফলে শিক্ষার্থীরা নিজ গৃহে অবস্থান করছেন। এই বন্ধকালীন সময়েই রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) মাদার বখশ্ হল থেকে এক শিক্ষার্থীর সাইকেল চুরির অভিযোগ পাওয়া গেছে।ভুক্তভোগী বিশ্ববিদ্যালয়ের গনিত বিভাগের শিক্ষার্থী এম. এইচ. আর হাবীব খান এ অভিযোগ করেন।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর অভিযোগ, ১৮ মার্চ ক্যাম্পাস বন্ধ ঘোষণা করলে ঐদিনই হল ত্যাগ করে বাড়ি চলে যান তিনি। সচরাচর প্রায় সকল শিক্ষার্থী হলের মসজিদের সামনে সাইকেল রাখেন।তিনিও সেখানেই সাইকেলটি রেখে রাড়ি এসেছিলেন।

গত ১৬ আগষ্ট ঐ শিক্ষার্থী প্রয়োজনীয় কিছু জিনিসপত্র নিতে হলে আসেন। হল প্রাধ্যক্ষের
অনুমতিক্রমে হলে প্রবেশের পর তার প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র গ্রহণ করেন। পরে তার রেখে যাওয়া সাইকেল দেখতে গেলে তা খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিলেন না তিনি। হলের সর্বত্র খুঁজেও সন্ধান পায় নি তার সাইকেলটির।

তিনি আরো বলেন, মসজিদের সামনে এখনও তিনটা সাইকেল আছে কিন্তু তার সাইকেলটিই শুধু নেই। তার সাইকেলটি তুলনামুলক ভালো হওয়ায় সেটা টার্গেট করে চুরি করা হয়েছে বলে আমি মনে করি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মাদার বখশ্ হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক আব্দুল আলীম বলেন, এটা পুরো একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা। শিক্ষার্থীরা হলের বিভিন্ন জায়গায় সাইকেল রাখেন। কিন্তু বন্ধ অবস্থায় এটি কিভাবে হঠাৎ গায়েব হলো আমরা অবশ্যই তা দেখবো। যেহেতু হল থেকে বের হওয়ার একটিই গেইট আছে। সেই গেইটটি সিসিটিভি ক্যামেরা নিয়ন্ত্রিত। সেক্ষেত্রে আমরা বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করবো। সিসিটিভি ফুটেজ দেখে চোর শনাক্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ও ছাত্র উপদেষ্টা (অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত) লুৎফর রহমান বলেন, হল বন্ধ থাকা সত্বেও হল থেকে চুরির ঘটনা অবশ্যই অপ্রত্যাশিত। আমি চুরি হওয়া সাইকেলটি উদ্ধার করতে ওই হলের প্রাধ্যক্ষকে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে বলবো।