লক্ষ্মীপুরে সংঘবদ্ধ ভাবে ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেপ্তার আরও ২

রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) সংবাদদাতা:

লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলায় এক নারীর (৩৫) ঘরে ঢুকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় আরও দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

বুধবার তাদের আদালতে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করা হবে।

পুলিশ অভিযান চালিয়ে নোয়াখালীর চর কলিমুল্লাহ গ্রাম থেকে আরিফ হোসেন (২৩) ও মো. আলাউদ্দিন (৩৫) নামে দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করে। তাদের দুজনের বাড়ি রামগতি উপজেলায়। ঘটনার পরপর পুলিশ দুই আসামি জামাল হোসেন (২৭) ও মো. সোহেলকে গ্রেপ্তার করে। মঙ্গলবার তাদের ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

গত রোববার রাত একটার দিকে ঘরের দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে ৫ যুবক ওই নারীকে ধর্ষণ করেন। পরের দিন সোমবার সকালে স্থানীয় লোকজন হাত, পা ও মুখ বাঁধা অবস্থায় ওই নারীকে বাড়ির পাশের বাগান থেকে উদ্ধার করেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ভুক্তভোগী নারীর স্বামী মারা গেছেন। একমাত্র মেয়ের বিয়ে দিয়েছেন অন্য এলাকায়। তিনি একাই থাকেন। ধর্ষণের ঘটনার পর সোমবার সকালে স্থানীয় লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন।

ওই দিনই তিনি রামগতি থানায় ধর্ষণের ঘটনায় মামলা করেন। মামলায় স্থানীয় জামাল হোসেনসহ পাঁচজনকে আসামি করা হয়েছে।

রামগতি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সোলাইমান বলেন, এ পর্যন্ত চার আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অপর এক আসামিকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। ন্যক্কারজনক ঘটনাটি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে।