‘সমাধানের উদ্যোগের পরিবর্তে উদ্ভট কর্মকাণ্ড চলছেই’

নিজস্ব প্রতিবেদক:

করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কাঙ্খিত ভূমিকা রাখতে না পারার কারণে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও অধিদফতরে ব্যাপক রদবদলে আশার পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছিল। কিন্তু দ্রুতই তা হতাশায় পরিণত হচ্ছে। মূল সমস্যা চিহ্নিত করে সমাধানের উদ্যোগের পরিবর্তে উদ্ভট কর্মকান্ড চলছে বলে মন্তব্য বলেছেন স্বাস্থ্য খাতফাউন্ডেশন ফর ডক্টরস সেইফটি, রাইটস অ্যান্ড রেসপনসিবিলিটিস (এফডিএসআর)-এর চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. আবুল হাসনাৎ মিল্টন।

তিনি বলেন, স্বাস্থ্য অধিদফতরের সদ্য নিয়োগপ্রাপ্ত মহাপরিচালকের নিয়োগের আদেশে এতদিন পরে ‘ভারপ্রাপ্ত’ যোগ হওয়া নিয়েও সমালোচনা উঠেছে। ফলে সরকারকেও বিব্রতকর পরিস্থিতির মুখে পড়তে হচ্ছে। এভাবে তো চলতে পারে না। এখন সবাইকে আস্থায় নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী-স্বাস্থ্য সচিবের ঐক্যবদ্ধভাবে স্বাস্থ্য খাতের উন্নয়নে কাজ করতে হবে। নয়তো সরকারের কাছে ব্যর্থদের সরিয়ে দেওয়ার দাবি তুলতে আমরা আবারও বাধ্য হব।

ডা. আবুল হাসনাৎ মিল্টন বলেন, ডাক্তারসহ স্বাস্থ্যকর্মীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে করোনা রোগীদের চিকিৎসা সেবা প্রদান করে যাচ্ছেন। যুক্তিসঙ্গত কারণ ছাড়াই বিকল্প ব্যবস্থা না করে হোটেলে তাদের থাকার ব্যবস্থা বাতিল করা উচিত হয়নি।

এর ফলে একদিকে তারা থাকার জায়গার সমস্যায় পড়বেন, অন্যদিকে অনেকেরই পরিবারের সদস্যরাও করোনায় সংক্রমিত হওয়ার ঝুঁকির মধ্যে পড়বে। পরামর্শক কমিটির বিশেষজ্ঞদের মতামত উপেক্ষা করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জনস্বাস্থ্যবিষয়ক বৈজ্ঞানিক বিষয়সমূহও আমলাতান্ত্রিক উপায়ে সমাধানের চেষ্টা করে সবকিছু লেজে-গোবরে করে ফেলছে।