সর্বনাশা পদ্মা কেড়ে নিলো এতিম শিশুর প্রাণ

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি:

খেলা শেষ হলেও বাড়ি ফেরা হয়নি শিশু আলামিনের। সর্বনাশা পদ্মা কেড়ে নিল পিতৃহীন এই এতিম শিশুটির প্রাণ। ঘটনাটি রাজশাহীর বাঘা উপজেলার পাকুড়িয়া ইউনিয়নের আলাইপুর নাপিত পাড়া এলাকায় ঘটেছে। রবিবার (৩০ আগষ্ট) সকাল ১১ টায় এ ঘটনা ঘটে।

ডুবে যাওয়া শিশুটির উপজেলার আলাইপুর নাপিত পাড়া এলাকার মৃত: লালন উদ্দিনের ছেলে। সে স্থানীয় একটি মাদ্রাসার ১ম শ্রেনীর ছাত্র। নিখোঁজ শিশুর পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, শিশুর জন্মের ৩ বছর বয়সে তার বাবা মারা যায়। ঘটনার দিন আলামিন সঙ্গিদের সাথে খেলাধুলা শেষে পদ্মা নদীর আলাইপুর নাপিতপাড়া ঘাটে হাতমুখ ধুতে গিয়ে পা ফসকে গভীর পানিতে পড়ে যায়।

পরে খবরটি ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয়ভাবে তাকে উদ্ধারের চেষ্টা করা হয়। কিন্তু নিউজ লিখা পর্যন্ত তার কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি। এ বিষয়ে ৩-নং পাকুড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান মেরাজুল ইসলাম মেরাজ জানান, নদীতে শিশু তলীয়ে যাবার কথা শুনে তাৎক্ষনিক ঘটনা স্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধারের জন্য নৌকার ব্যাবস্থা করে দেওয়া হয়েছে। স্থানীয় জেলেরা তাকে খোঁজার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

তবে ভরা নদী হওয়ায় ডুবুরি আসে নাই। পরিবারটি একদম অসহায়, যে কোন সহায়তায় আমি তাদের পাশে থাকবো।

দুরন্ত/৩০আগস্ট/পিডি