সেই ধর্ষণের দ্রুত তদন্তের দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) সুরঞ্জন সমাদ্দার ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের (টিএসসিসি) উপ-পরিচালক রাবিকুল ইসলাম রবিনের উপর আনিত যৌন নিপীড়ন ও ধর্ষণের অভিযোগের দ্রুত সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচারের দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র ফেডারেশন।

আজ বৃহস্পতিবার (২৭ আগস্ট) বেলা ১২ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনের সামনে তারা এ কর্মসূচি পালন করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ফোকলোর বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড.আমিরুল ইসলাম কনক, মহানগর শাখার সম্পাদক জিন্নাত আরা সুমু, সাবেক আহ্বায়ক ইয়াসির আরাফাত, রাবি শাখার সভাপতি আশরাফুল আলম সম্রাট, সাধারণ সম্পাদক মোহাব্বত হোসেন মিলন প্রমুখ।

কর্মসূচিতে অধ্যাপক ড. আমিরুল ইসলাম কনক বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের মত জায়গায় যৌন হয়রানি ও নিপীড়নের ঘটনা খুবই অনাকাঙ্ক্ষিত। এমন ঘটনা সুষ্ঠু জ্ঞান চর্চার পথকে বাধাগ্রস্থ করে। যৌন নীপিড়নের ফলে একজন নারীর মানসিক ও শারীরিক বিকাশ বাধাগ্রস্ত হয়। যেটা কখনই কাম্য নয়। এমন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার দ্রুত তদন্ত কামনা করি।

জিন্নাত আরা সুমু বলেন, এই অভিযোগসহ বিগত সময়ের সকল ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে বিশ্ববিদ্যালয়কে শিক্ষা ও সংস্কৃতি চর্চার নিরাপদ পরিবেশ নিশ্চিত রাখা প্রশাসনের দায়িত্ব। বিশ্ববিদ্যালয়ের মত জায়গায় এমন ঘটনাগুলো সত্যিই অপ্রত্যাশিত।

বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি আশরাফুল আলম সম্রাট বলেন, যেখানে বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে মুক্ত বুদ্ধি, উৎপাদনমুখী শিক্ষা ও সুষ্ঠু সংস্কৃতি চর্চার প্রান কেন্দ্র। সেখানে ধর্ষণ ও যৌন নিপীড়নের ঘটনা সত্যি আমাদের হতাশ করে। তিনি কর্মসূচিতে ধর্ষণ ও যৌন নিপীড়নের সকল অভিযোগ দ্রুত তদন্ত সম্পন্ন করাতে প্রশানের নিকট দাবি জানিয়েছেন।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মহব্বত হোসেন মিলন বলেন, সম্প্রতি আলোচিত যৌন নিপীড়নের ঘটনাসহ বিগত সময়ের সকল ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও দোষিকে বিচারের আওতায় আনার আহ্বান জানাই।

এসময় প্রশাসন বিগত সময়ের মতো তদন্তের নামে প্রহসন বা সময় ক্ষেপন করলে বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন শিক্ষার্থীদের নিয়ে বৃহত্তর ছাত্র আন্দোলনে যেতে বাধ্য হবে বলেও হুশিয়ার করেন করেছেন তিনি।