হত্যা মামলায় একজনের মৃত্যুদন্ড ও পাঁচজনের যাবজ্জীবন

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি:

কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ থানার কৃষক বদিউর রহমান হত্যা মামলায় এক জনের মৃত্যু দন্ড এবং ৫ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড প্রদান করেছেন আদালত। একই সঙ্গে মৃত্যু দন্ড ও যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামিদের প্রত্যেককে ১ লাখ টাকা করে জরিমানা প্রদান এবং মামলার অপর ৯ আসামিকে বেকসুর খালাস প্রদান করেছেন আদালত।

রবিবার (৬ সেপ্টেম্বর) সকালে কিশোরগঞ্জের ১ম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মুহাম্মদ আব্দুর রহিম জনাকীর্ণ আদালতে পনের আসামির উপস্থিতিতে এ রায় প্রদান করেন।এদের মধ্যে মৃত্যু দন্ড প্রাপ্ত আসামি আব্দুস সাত্তার পলাতক রয়েছেন।তিনি করিমগঞ্জ উপজেলার বারঘড়িয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ ধীতপুর গ্রামের মৃত একরাম হোসেনের ছেলে।

যাবজ্জীবন কারাদন্ড প্রাপ্ত আসামি আব্দুস সাত্তার পলাতক রয়েছেন।তিনি করিমগঞ্জ উপজেলার বারঘড়িয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ ধীতপুর গ্রামের মৃত একরাম হোসেনর ছেলে। যাবজ্জীবন কারাদন্ড প্রাপ্ত আসামি হলেন,তোবারক হোসেন,আনোয়ার হোসেন,মোঃমেনু মিয়া,আবু তাহের ও নুরুল ইসলাম।সকলে দক্ষিণ ধীতপুর গ্রামের বাসিন্দা।

তাদের মধ্যে মৃত্যু দন্ডপ্রাপ্ত আব্দুস সাত্তার ও যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত তবারক সহোদর ভাই। মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণ থেকে জানা গেছে, কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ উপজেলার বারঘড়িয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ ধীতপুর গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ২০১৩ সালের ২৪ জুলাই বেলা ১২ টার দিকে একই গ্রামের রাস্তার পাশে কৃষক বদিউর রহমানকে বল্লম দিয়ে আঘাত করে।

এতে ঘটনাস্থলে তাঁর মৃত্যু হয়। আহত হয় তাঁর ছেলে গোলাপ সহ আরও কয়েকজন। এঘটনায় নিহতের ছেলে গোলাপ মিয়া বাদী হয়ে ২৬ জুলাই করিমগঞ্জ থানায় সতের জনের নাম উল্লেখ করে ১ টি হত্যা মামলা দায়ের করেন।মামলা চলাকালে আব্দুল বারেক নামে ১ জন আসামি মারা যান।মামলার তদন্ত কর্মকর্তা করিমগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক আশরাফুল সিদ্দিক ২০১৩ সালের ২৬ নভেম্বর মামলার সব আসামীর বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগ পত্র দাখিল করেন।